Agaminews
Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

মাগুরার হত্যার পাঁচ দিনেও ক্লু উদ্ধার হয়নি 


আগামী নিউজ | মোখলেছুর রহমান,মাগুরা প্রতিনিধি  প্রকাশিত: জুন ১০, ২০২১, ০৬:২৯ পিএম
মাগুরার হত্যার পাঁচ দিনেও ক্লু উদ্ধার হয়নি 

ফাইল ছবি

মাগুরাঃ জেলার আলোচিত আজিজুর রহমান হত্যার ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ ক্লু’সহ উদ্ধার করতে পারেনি লাশের মাথা, একটি পা। এ ঘটনায় নিহতের ভাই হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে গত ৬ জুন মহম্মদপুর থানায় অজ্ঞাত আসামী করে হত্যা ও লাশ গুমের মামলা করলেও এখনো পুলিশ হত্যার সাথে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। এদিকে আসামী গ্রেপ্তার এবং শরীরের বাকী অংশ উদ্ধার করতে না পারায় নিহতের পরিবারের সদস্যদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। 

মামলার বাদী নিহতের ছোট ভাই হাবিবুর রহমান বলেন,‘হত্যার পাঁচদিন পেরিয়ে গেলেও এখনো পুলিশ আমার ভাইয়ের মাথা ও একটি পা উদ্ধার করতে পারেনি। আমি আমার ভাইয়ের শরীরের বাকী অংশ উদ্ধারসহ নিশংস হত্যার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

মহম্মদপুর থানার ওসি তারক বিশ্বাস জানান, নিহতের ভাই হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে মহম্মদপুর থানায় হত্যা ও লাশ গুমের একটি মামলা করেছেন। হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও লাশের বাকি অংশ উদ্ধারের পুলিশি চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। 

প্রসঙ্গত, মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার কালুকান্দি গ্রামের একটি পুকুর থেকে গত ৬ জুন সকালে আজিজুর রহমান (৩০) নামে এক যুবকের মাথাবিহীন খন্ডিত লাশ উদ্ধার করে মহম্মদপুর থানা পুলিশ। লাশটি একটি বস্তায় পলিথিনে
মোড়ানো অবস্থায় ছিলো। পুলিশের ধারণা লাশের বাকি অংশ হত্যাকারীরা অন্য কোথাও ফেলে দিয়েছে। নিহত আজিজুর রহমান মাগুরা সদর উপজেলার সংকোচখালি গ্রামের মৃত মুজিবুর রহমানের ছেলে। ছোটবেলায় তার বাবা মা
মারার যাওয়ার পর মহম্মদপুরের বানিয়াবহু গ্রামে নানা আবুল কাশেমের বাড়িতে থেকে বড় হয় সে। আজিজুর ঢাকার একটি ওষুধ কোম্পানিতে সেলসম্যান ছিলেন। গত ৫ জুন শনিবার সকালে আজিজুর বাসা থেকে যশোরের উদ্যেশে রওনা হন। ওইদিন দুপুর ১২ টার পর থেকে তার মোবাইল ফোন বন্ধ হয়ে যায়। পরে ৬ জুন সকালে কালুকান্দি গ্রামের মতিয়ার মোল্যা পুকুরে স্থানীয় লোকজন রক্তাক্ত একটি বস্তা দেখে পুলিশে খবর দেয়। 

পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বস্তাটি উদ্ধার করলে তার ভিতর মাথা ও একটি পা বিহীন লাশ পাওয়া যায়। পরে লাশের পরিহিত পোষাক দেখে এটি আজিজুর রহমানের মরদেহ বলে শনাক্ত করে তার ছোট ভাই হাবিবুর রহমান। আজিজুর রহমানের লাশ মাগুরা সদর হাসপাতাল থেকে ময়নাতদন্ত শেষে বানিয়াবহু নানার বাড়িতে দাফন করা হয়েছে।