Dr. Neem on Daraz
Dr. Neem Hakim

যুক্তরাষ্ট্রে স্কুলে বন্দুকধারীর হামলা, ১৮ শিশুসহ নিহত ২১


আগামী নিউজ | আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রকাশিত: মে ২৫, ২০২২, ০৯:২২ এএম
যুক্তরাষ্ট্রে স্কুলে বন্দুকধারীর হামলা, ১৮ শিশুসহ নিহত ২১

ঢাকাঃ যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বন্দুকধারীর গুলিতে তিন শিক্ষকসহ ১৮ শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৪ মে) মেক্সিকো সীমান্তবর্তী উভালদে এলাকার একটি এলিমেন্টারি স্কুলে এ ঘটনা ঘটে। যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকহামলার ঘটনা নিয়মিত হলেও গত ১০ বছরের মধ্যে দেশটির স্কুলে সংঘটিত এটিই সবচেয়ে প্রাণঘাতী হামলা।

সংবাদমাধ্যম বিবিসি, আল জাজিরা ও এবিসি নিউজের  প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

গভর্নর গ্রেগ অ্যাবটের জানান, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে টেক্সাসেস রব এলিমেন্টারি স্কুলে এ ঘটনা ঘটে। স্কুলটি আমেরিকার সপ্তম বৃহত্তম শহর সান আন্তোনিও থেকে প্রায় ৮৩ মাইল (১৩৩ কি.মি.) পশ্চিমে অবস্থিত। এটি একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এর শিক্ষার্থীদের বয়স পাঁচ থেকে ১১ বছর।

অ্যাবট আরও জানিয়েছেন, বন্দুকধারী ওই ব্যক্তির নাম সালভাদর রামোস। তার বয়স ১৮। তিনি ওই এলাকারই বাসিন্দা। তিনি শুটিংয়ের সময় একটি হ্যান্ডগান এবং সম্ভবত একটি রাইফেল ব্যবহার করেছিলেন। যদিও এটি এখনও নিশ্চিত নয়।

গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট এবং তার স্ত্রী সিসিলিয়া শোক জানিয়েছেন। এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঠেকাতে তিনি টেক্সাসের বাসিন্দাদের একত্রিত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে ঘটনাস্থলেই বন্দুকধারী রামোস মারা গেছেন। ধারণা করা হচ্ছে, ঘটনাস্থলে পাঠানো পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তার মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও, গুলি বিনিময়ের সময় দুই পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছে। যদিও তারা আশঙ্কামুক্ত।

স্থানীয় পুলিশ জানায়, বন্দুকধারীর গুলিতে আরও অনেকে আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে একজন ৬৬ বছর বয়সী নারী এবং একজন ১০ বছর বয়সী শিশু আন্তোনিওর বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

যুক্তরাষ্ট্রে ২০১২ সালের পর থেকে এটিই সবচেয়ে প্রাণঘাতী হামলা। ওই বছর কানেক্টিকাটের স্যান্ডি হুক এলিমেন্টারি স্কুলে বন্দুকহামলায় ২০ শিশু ও ছয় কর্মকর্তা নিহত হন।

এদিকে, রব এলিমেন্টারি স্কুলে প্রাণঘাতী এ হামলার পরিপ্রেক্ষিতে আগামী ২৮ মে পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার নির্দেশ দিয়েছে হোয়াইট হাউজ। এ ধরনের ঘটনার যেন আর পুনরাবৃত্তি না ঘটে, যে জন্য বন্দুক নিয়ন্ত্রণ আইন আরও কঠোর করার আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

এক ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, জাতি হিসেবে আমাদের জিজ্ঞেস করতে হবে, আমরা কখন বন্দুক লবির বিরুদ্ধে দাঁড়াবো? যা দরকার তা আমরা কবে করবো? আমরা কেন এমন হত্যাযজ্ঞের মধ্যে বাঁচতে চাই?

তিনি বলেন, আমি পীড়িত ও ক্লান্ত। আমাদের ব্যবস্থা নিতে হবে। বলবেন না যে, এমন হত্যাকাণ্ডের ওপর আমরা কোনো প্রভাব ফেলতে পারবো না।

যুক্তরাষ্ট্রে নিয়মিত বন্দুক হামলা ও তাতে প্রাণহানির ঘটনা ঘটলেও সেখানে বন্দুক নিয়ন্ত্রণ আইন এখনো কঠোর করা যায়নি। মার্কিন কংগ্রেসে এ বিষয়ে কয়েকবার উদ্যোগ নেওয়া হলেও শেষপর্যন্ত ব্যর্থ হয়েছে সেগুলো।

গত ১৪ মে নিউইয়র্কে একটি মুদি দোকানে এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে ১০ জনকে হত্যা করে ১৮ বছরের এক কিশোর। নিজেকে শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী ঘোষণা দিয়ে আফ্রিকান-আমেরিকান অধ্যুষিত এলাকাটিতে হামলা চালায় সে।

এর একদিন পরেই ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি চার্চের দরজায় দাঁড়িয়ে নির্বিচারে গুলি চালায় এক বন্দুকধারী। এতে একজন নিহত ও পাঁচজন আহত হন।

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের তথ্য মতে, ২০২০ সালে দেশটিতে ১৯ হাজার ৩৫০টি বন্দুকহামলার ঘটনা ঘটেছে, যা ২০১৯ সালের তুলনায় ৩৫ শতাংশ বেশি।

এমবুইউ