Dr. Neem on Daraz
Dr. Neem Hakim
বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ

স্লোগানে স্লোগানে মুখর গোলাপবাগ মাঠ


আগামী নিউজ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১০, ২০২২, ১০:৫৬ এএম
স্লোগানে স্লোগানে মুখর গোলাপবাগ মাঠ

ঢাকাঃ বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশ উপলক্ষে ভোর থেকেই থেমে থেমে নেতাকর্মীদের স্লোগানে-স্লোগানে প্রকম্পিত হচ্ছে রাজধানীর সায়েদাবাদ গোলাপবাগ মাঠ ও আশপাশের এলাকা। দেশের বিভিন্ন জেলা ও রাজধানীর বিভিন্ন ইউনিট থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে প্রবেশ করছে নেতাকর্মীরা।

অনেক নাটকীয়তা শেষে সমাবেশের অনুমতি পাওয়ার পর শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) রাত থেকে মাঠে অবস্থান করা শুরু করে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। অনেককে রাতে স্ব স্ব ইউনিটের নেতাকর্মীদের মধ্যে শুকনা খাবার বিতরণ করতে দেখা গেছে।

শনিবার সকালে সমাবেশস্থলে গিয়ে দেখা যায়, নানা রঙের টি-শার্ট-ক্যাপ পরে মিছিল নিয়ে সমাবেশে আসছেন নেতাকর্মীরা। গোলাপবাগ মাঠে একপ্রান্তে মঞ্চ তৈরির কাজও শেষ। নেতাকর্মীরা মঞ্চের সামনে অবস্থান নিয়েছেন। অনেক নেতাকে মঞ্চে অবস্থান নিতেও দেখা গেছে। ঘোষণা অনুযায়ী বেলা ১১টায় সমাবেশ শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

এদিকে সায়েদাবাদের জনপদ মোড় ও যাত্রাবাড়ী মোড়ে বিপুলসংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা অবস্থান নিয়েছেন। সমাবেশকে কন্দ্রে করে গোলাপবাগ মাঠ ও এর আশেপাশে বিপুল সংখ্যক পুলিশ, র‍্যাব ও সাদা পোশাকের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদেরকেও সতর্ক অবস্থানে থাকতে দেখা গেছে।

গতকাল সমাবেশের অনুমতি পাওয়ার পর থেকেই দলে দলে বিএনপি নেতাকর্মীরা এই মাঠে আসতে শুরু করেন। সন্ধ্যা গড়িয়ে রাত নামতেই পূর্ণ হয়ে ওঠে রাজধানীর এই মাঠটি।

দেশের বিভিন্ন জেলা শহর থেকে সমাবেশে আসা একাধিক নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সমাবেশে যোগ দিতে কয়েকদিন আগে থেকেই তারা ঢাকায় প্রবেশ করেন। নানা চড়াই-উতরাই পার করার পরেও সমাবেশস্থল নির্ধারিত হওয়াতে উচ্ছ্বসিত তারা।

টঙ্গি থেকে আসা যুবদল কর্মী সোহাগ মিয়া বলেন, গতকাল রাতে এসেছি। আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য। তারেক জিয়াকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য।

সকালে সমাবেশস্থলে মিছিল নিয়ে এসেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের সাবেক সদস্য সচিব আমান উল্লাহ আমান। তিনি বলেন, সরকার আমাদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করেছে। সমাবেশ বানচালের চেষ্টা করা হয়েছে। আমাদের মহাসচিবসহ হাজারো নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। তার প্রতিবাদে আমরা এখানে এসেছি। এ সরকারের পদত্যাগ না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরবো না।

উল্লেখ্য, জ্বালানি তেল ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি, দলীয় কর্মসূচিতে গুলি করে নেতাকর্মীদের হত্যার প্রতিবাদ এবং নির্বাচনকালীন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবিতে বিভাগীয় (দলের সাংগঠনিক বিভাগ) পর্যায়ে সমাবেশ করছে বিএনপি। দশটি বিভাগের কর্মসূচি আজ ঢাকায় সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হচ্ছে।

বুইউ