Agaminews
Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে সাংবাদিক সংহতি অনুষ্ঠিত


আগামী নিউজ প্রকাশিত: এপ্রিল ৪, ২০২১, ০৬:৫৯ পিএম
সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে সাংবাদিক সংহতি অনুষ্ঠিত

ছবি: আগামী নিউজ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: গত ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলামের সহিংসতায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল সহ সরকারি-বেসরকারি স্থাপনা ভাংচুর-অগ্নি সংযোগ ও হেফাজতে হরতাল চলাকালে জেলার প্রেসক্লাবের সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামিসহ দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের উপর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদ করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাংবাদিক ইউনিয়নের সাংবাদিকরা।

রবিবার(৪ এপ্রিল) দুপুরের ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে জেলা ও উপজেলার শতাধিক সাংবাদিককে নিয়ে সাংবাদিক সংহতি অনুষ্ঠিত হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাংবাদিক ইউনিয়নের আহ্বায়ক মো.মনির হোসেন এর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম-আহবায়ক ফরহাদুল ইসলাম পারভেজের সঞ্চালনায় এসময় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মজিদ।

বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন জামি, প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি পীযুষ কান্তি আচার্য, সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রহিম বিজন, প্রেসক্লাব সহসভাপতি ইব্রাহিম খান সাদত, সাবেক সভাপতি মো.আরজু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাদেকুর রহমান, আ ফ ম কাউসার এমরান, দীপক চৌধুরী বাপ্পী, সাবেক সহসভাপতি মফিজুর রহমান লিমন, সৈয়দ মো.আকরাম, সাংবাদিক ইউনিয়ন যুগ্ম-আহ্বায়ক বিশ্বজিৎ পাল বাবু, নিয়াজ মো.খান বিটু, সময় টেলিভিশনের ব্যুরো প্রধান ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি উজ্জল চক্রবর্তী, গাজী টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি জহির রায়হান, এশিয়ান টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার হাবিবুর রহমান পারভেজ, কসবা প্রেসক্লাবের সভাপতি সোলেমান খান, আখাউড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মানিক মিয়া, নবীনগর প্রেসক্লাবের সভাপতি সঞ্জয় সাহা, সরাইল প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব খান বাবুল প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আবদুল মজিদ বলেন, হেফাজতের মূল টার্গেট মোদির সফর নয়, তাদের মূল টার্গেট হলো বাংলাদেশ যে উন্নয়নের মহাসড়কে আছে এবং উন্নত রাষ্ট্রের দিকে যাচ্ছে তা। মোদির বিরোধীতার নামে যারা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তান্ডব চালিয়েছে তারা দেশ, স্বাধীনতা ও রাষ্ট্রবিরোধী। হেফাজতের তান্ডবকারীদের রাষ্ট্রদ্রোহিতার আইনে বিচারের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তিনি দাবী জানান।

তিনি আরও বলেন, জাতির পিতা জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর সময়ে হেফাজতের তান্ডব এ দেশের স্বাধীনতাকেই চ্যালেঞ্জ করা। হেফাজত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তান্ডব চালিয়ে তাদের শক্তি প্রদর্শন করেছে। শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে যেভাবে এগিয়ে নিচ্ছেন, পৃথিবীর বুকে মাঁথা উঁচু করে দাঁড়াচ্ছে তা তাদেরই ভালো লাগে না। যাদের আমরা একাত্তরে পরাজিত করেছিলাম।

সাংবাদিক সংহতি প্রতিবাদ ও সমাবেশে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় কর্মরত বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

আগামীনিউজ/মালেক