Agaminews
Dr. Neem Hakim

দক্ষিণের ১৪নং ওয়ার্ড : ‘যানজট ও জলাবদ্ধতা-গ্যাস সঙ্কট দূর করবো’


আগামী নিউজ | দেলোয়ার মহিন প্রকাশিত: মার্চ ৭, ২০২০, ০৩:০৪ পিএম
দক্ষিণের ১৪নং ওয়ার্ড : ‘যানজট ও জলাবদ্ধতা-গ্যাস সঙ্কট দূর করবো’

ঢাকা : ঝিগাতলা, ট্যানারি মোড়, বৌবাজার, হাজারীবাগ বাজার, গজমহল, সুলতানগঞ্জ, শিকারিটোলা, রায়ের বাজারসহ ১৫টি পাড়া-মহল্লা নিয়ে গঠিত ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৪ নং ওয়ার্ড। প্রায় ৮ কিলোমিটারের আয়তন জুড়ে এই ওয়ার্ডটি। ঘিঞ্জি ঘনবসতিপূর্ণ ছোটখাটো সরু গলির পাশাপাশি চামড়া শিল্প নগরী হিসেবে পরিচিত এই ওয়ার্ডটি। 

এই ওয়ার্ডের পূর্ব দিকে রয়েছে ঝিগাতলা বাসস্ট্যান্ড, পশ্চিমে বুড়িগঙ্গা নদী, উত্তরে মুক্তি সিনেমা হল এবং দক্ষিণে হাজারীবাগ বাজার। এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা প্রায় ৮৪ হাজার হলেও ওয়ার্ডটিতে প্রায় ৫ লক্ষাধিক মানুষের বসবাস। এই ওয়ার্ডবাসীর অফুরন্ত ভালোবাসায় বর্তমান কাউন্সিলর হিসেবে জয় লাভ করেন হাজারীবাগ থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি হাজী ইলিয়াছুর রহমান বাবুল। এবার এই ওয়ার্ডকে কিভাবে গড়ে তুলতে চান এই নব নির্বাচিত কাউন্সিলর সেই বিষয়ে কথা হয় আগামীনিউজ ডটকমের সঙ্গে। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন দেলোয়ার মহিন

আগামীনিউজ :  আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন আপনি?

ইলিয়াছুর রহমান বাবুল : ওয়ালাইকুম আসসালাম। সকলের দোয়ায় খুব ভালো আছি।

আগামীনিউজ : কাউন্সিলর হিসেবে জয় লাভ করায় আগামীনিউজের পক্ষ থেকে আপনাকে অভিনন্দন।

ইলিয়াছুর রহমান বাবুল : আগামী নিউজকেও জানাই অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

আগামীনিউজ : শপথ নিলেও এখনও দায়িত্ব পাননি আপনারা। তারপরও এই ওয়ার্ডের কি কি সমস্যা দেখছেন আর তা কিভাবে সমাধানের পরিকল্পনা করছেন?

ইলিয়াছুর রহমান বাবুল : আমার এই ওয়ার্ডে মূল সমস্যা দুটি। যানজট ও জলাবদ্ধতা। এর বাহিরে সমস্যা নেই বললেই চলে। তারপর ও নানা ছোট-খাটো সমস্যা থাকতে পারে তা সকলের সহোযোগিতায় সমাধান করবো ইনশাহআল্লাহ।

আগামীনিউজ : যানজট ও জলাবদ্ধতা নিরসনে কিভাবে কাজ করবেন?

ইলিয়াছুর রহমান বাবুল : আমি মনে করি এই ওয়ার্ড থেকে জানযট দূর করতে পারলে অর্ধ শতাংশ ভোগান্তি দূর হয়ে যাবে। তার জন্য প্রশাসনের সহযোগিতা প্রয়োজন। এই ওয়ার্ডে সড়কের দুই পাশেই এলোমেলোভাবে পার্কিং করা থাকে ব্যক্তিগত গাড়িসহ শত শত ব্যাটারিচালিত রিকশা। তাই সড়কে অনিয়ম-অব্যবস্থাপনা লেগেই থাকে। প্রশাসনের সহযোগিতা পেলে এই ওয়ার্ডের ফুটপাত ও রাস্তা দখল ও অটোরিক্সা অবমুক্ত করবো। যাতে করে কোন রকম যানজট সৃষ্টি না হয়। আর এই জানজট নিরসনে ফুটপাত ও রাস্তা দখলমুক্ত ছাড়াও যা যা করণীয় আমি তাই তাই করবো।

এছাড়া বাকি অর্ধশতাংশ সমস্যা হলো জলাবদ্ধতা। আর এই সমস্যা নিরসন করতে পারলে ওয়ার্ডবাসী সুখে-শান্তিতে বসবাস করতে পারবে। তাই এই জলাবদ্ধতা নিরসনে ইতোমধ্যে পরিকল্পনা চলছে। যতদ্রুত সম্ভব ড্রেনেজ ও পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থার আধুনিকায়ন কাজ শুরু করা হবে। যাতে করে এই বর্ষা মৌসুমে ওয়ার্ডবাসী কোন ধরনের ভোগান্তিতে না পড়ে।     

আগামীনিউজ : এ ওয়ার্ডে মাদক, সন্ত্রাস ও কিশোরগ্যাং উপস্থিতি সব সময় চোখে পরার মতো।এমটাই অভিযোগ এলাকাবাসীর। এসব অভিযোগের সমাধান কিভাবে করবেন আপনি?

ইলিয়াছুর রহমান বাবুল : আমার এই ওয়ার্ডে মাদক ও সন্ত্রাসের কোন রকম ছাড় নেই।আমি এসব সমস্যা সমাধানে প্রশাসনের সহোযোগিতা চাই। যাতে করে এই ওয়ার্ড থেকে মাদক, সন্ত্রাস ও কিশোর গ্যাংদের গোড়া উপড়ে ফেলতে পারি।

আগামীনিউজ : মরণ ব্যাধি খ্যাত মশা নিরসনে কি কি পরিকল্পনা রয়েছে আপনার?

ইলিয়াছুর রহমান বাবুল : আমার এই ওয়ার্ডটি ঘিঞ্জি ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা। এখানে রয়েছে কয়েকটি খাল যা সবসময় ময়লা-আবর্জনায় ভরে থাকে। প্রথমত সেব খাল গুলো পরিষ্কার-পরিছন্ন রাখতে হবে। ওয়ার্ডের ড্রেন ও নর্দমাগুলো সব সময় পরিষ্কার রাখতে হবে যাতে করে মশা জন্ম নিতে না পারে। তারপর মশা নিধন কার্যক্রম হিসেবে ফগিং, স্প্রে, বাসায় বাসায় গিয়ে জনসচেতনতা চালিয়ে যেতে হবে।

আগামীনিউজ : এই ওয়ার্ডের উন্নয়নে কি করতে চান?

ইলিয়াছুর রহমান বাবুল : আমার এই ওয়ার্ডে খেলার মাঠ ও স্বাস্থ্যকেন্দ্র, কমিউনিটি সেন্টার, ব্যায়ামাগার, পাঠাগার নেই। কমিউনিটি সেন্টার না থাকায় নিম্মবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের বিয়েসহ সামাজিক অনুষ্ঠানের অতিরিক্ত খরচ বহন করতে হয়। আমি ওয়ার্ডবাসীর এই অভাবগুলো পূরণ করবো। এছাড়া ওয়ার্ডের প্রায়সময় গ্যাসের সমস্যা হয়ে থাকে। সংশ্লিষ্টদের সাথে বসে এই গ্যাসের সমস্যা দূর করবো।  

আগামীনিউজ : আগামীনিউজকে আপনার মূল্যবান সময় দেয়ার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।

ইলিয়াছুর রহমান বাবুল : আগামীনিউজকেও অনেক অনেক ধন্যবাদ।

আগামীনিউজ/মহিন /মিজান 

Dr. Neem

সাক্ষাৎকার বিভাগের আরো খবর