শিনজো আবের রাষ্ট্রীয়ভাবে শেষকৃত্য আজ


আগামী নিউজ | আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২, ১১:৪৯ এএম
শিনজো আবের রাষ্ট্রীয়ভাবে শেষকৃত্য আজ

ঢাকাঃ জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের শেষকৃত্য আজ। বিতর্ক আর ভালোবাসাকে সঙ্গী করে জাপানের আধুনিক দিনের রাজনীতিতে সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে দেশ শাসন করা এই নেতার রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ উপলক্ষে টোকিওতে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এই আনুষ্ঠানিকতায় অংশ নিচ্ছেন বিশ্ব নেতারাসহ চার হাজার মানুষ। অনুষ্ঠানের এ আয়োজনে সাধারণ মানুষের ঘোর আপত্তি ছিল। তবে দীর্ঘদিন দেশের জন্য কাজ করে যাওয়া শিনজো আবের এই রাষ্ট্রীয় শেষকৃত্যের আয়োজন সম্পন্ন করতে বদ্ধপরিকর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা।

রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে পরিচালিত ইভেন্টটি, ৫৫ বছরের মধ্যে একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর জন্য প্রথম ঘটনা। সমালোচকরা বলেন যে, এটির কোনো আইনি ভিত্তি নেই। শিনজো আবের শেষকৃত্যে প্রায় ১ দশমিক ৬৬ বিলিয়ন ইয়েন খরচ হচ্ছে, যা রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যের চেয়েও অনেক বেশি।

সংবাদমাধ্যম বলছে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ছাড়াও সাবেক এই জাপানি প্রধানমন্ত্রীর শেষকৃত্যে উপস্থিত থাকবেন বহু দেশের দেশের রাষ্ট্রপ্রধান বা শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তারা। এছাড়া অস্ট্রেলিয়া, কানাডা এবং সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রীও উপস্থিত থাকবেন এই অনুষ্ঠানে। এর পাশাপাশি মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস এবং চীন ও রাশিয়ার প্রতিনিধিরাও থাকবেন সেই সেখানে।

রয়টার্স বলছে, মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস-সহ কমপক্ষে ৪৮ জন বর্তমান বা সাবেক সরকারি ব্যক্তিত্বের পাশাপাশি মঙ্গলবারের অনুষ্ঠানে প্রায় ৪ হাজার ৩০০ জন অতিথি উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করা হচ্ছে। জাপানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা এই অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া আয়োজনের আরেকটি কারণ হিসেবে আন্তর্জাতিক নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগকে উল্লেখ করেছেন।

বিশ্বের শিল্পোন্নত দেশগুলোর জোট গ্রুপ অব সেভেন (জি৭) নেতারাও মঙ্গলবারের এই আয়োজনে যোগ দিতে প্রস্তুত। তবে নিজ দেশে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলার জন্য কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো জাপান সফর বাতিল করেছেন।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার দুপুর ২টায় (বাংলাদেশ সময় বেলা ১১টা) সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের শেষকৃত্যানুষ্ঠান শুরু হবে। এসময় আবের দেহভস্ম নির্ধারিত ভেন্যুতে নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানে একজন অনার গার্ড কামান থেকে ১৯ রাউন্ড গোলাবর্ষণ করবেন।

রয়টার্স বলছে, রাষ্ট্রীয় এই অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কয়েক হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আশপাশের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং এমনকি কিছু স্কুলও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে কারণ জাপান যেকোনো ধরনের নিরাপত্তা ত্রুটি এড়াতে চায়।

এদিকে বড় ধরনের আয়োজন করে সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের শেষকৃত্য নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে জাপানে। পূর্ব এশিয়ার এই দেশটির স্থানীয় সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে একটি সমীক্ষা প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, বিপুল খরচে এই অনুষ্ঠান করার পক্ষপাতী নন ৬২ শতাংশ জাপানি।

বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে শিনজো আবের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার খরচ নিয়েও। বলা হচ্ছে, সাবেক এই জাপানি প্রধানমন্ত্রীর শেষকৃত্যের খরচ ব্রিটেনের প্রয়াত রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যের চেয়েও বেশি।

যদিও রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের রাষ্ট্রীয় শেষকৃত্যে ব্যয় করা অর্থের পরিমাণ সরকারি ভাবে প্রকাশ করা হয়নি। তবে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিররের এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, রানির শেষকৃত্যে খরচ হয়েছে ৮০ লাখ পাউন্ড।

যার অর্থ, শিনজো আবের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় নির্ধারিত অর্থের পরিমাণ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যে হওয়া খরচের চেয়েও বেশি।

ডেইলি মিররের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, রানির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় ৮০ লাখ পাউন্ড বা ১৩০ কোটি ইয়েন ব্যয় হয়েছে। অন্যদিকে, জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার ব্যয় ১৬৬ কোটি ইয়েন নির্ধারণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৮ জুলাই জাপানের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর নারায় এক জনসমাবেশে বক্তৃতা দেওয়ার সময় ঘাতকের গুলিতে প্রাণ হারান শিনজো আবে। দেশটির বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনায় ব্যাপক ঘাটতি ছিল।

জাপানের ইতিহাসের পাতায় আগেই জায়গা করে নিয়েছিলেন শিনজো আবে। ২০১২ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী হিসেবে যুদ্ধোত্তর অন্য যেকোনো নেতার চেয়ে বেশি সময় দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

এমবুইউ