Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

অবশেষে কলম্বিয়ার মোস্ট ওয়ান্টেড মাদক সম্রাট গ্রেফতার


আগামী নিউজ | আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রকাশিত: অক্টোবর ২৪, ২০২১, ১১:২২ এএম
অবশেষে কলম্বিয়ার মোস্ট ওয়ান্টেড মাদক সম্রাট গ্রেফতার

ছবি: সংগৃহীত

ঢাকাঃ বিশ্বের অন্যতম কোকেইন উৎপাদক ও পাচারকারী কলম্বিয়ার মোস্ট ওয়ান্টেড দাইরো আন্তোনিও উসুগাকে (৫০) আটক করা হয়েছে।

স্থানীয় সময় শনিবার (২৩ অক্টোবর) যৌথ অভিযানে পানামা সীমান্তবর্তী অ্যান্টিকোয়া প্রদেশের প্রত্যন্ত আস্তানা থেকে তাকে আটক করা হয়।

দেশটির সবচেয়ে শক্তিশালী গ্যাংয়ের প্রধানকে সবাই ‘অতোনিয়েল’ নামেই চেনে। তার অবস্থান জানতে কলম্বিয়া সরকার আট লাখ ডলার (৭ কোটি টাকার বেশি) এবং তার যুক্তরাষ্ট্র তার মাথার দাম ৫০ লাখ ডলার (প্রায় ৪৫ কোটি টাকা) ঘোষণা করেছিল।

এখনও এই অভিযানের বিস্তারিত জানা না গেলেও কলম্বিয়ান প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, অভিযানে একজন পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন।

জানা গেছে, ১০ বছর আগে নববর্ষের পার্টিতে পুলিশের একটি অভিযানে তার ভাই নিহত হওয়ার পর গালফ ক্ল্যানের প্রধান হয়ে ওঠেন অ্যাতোনিয়েল, যেটি আগে উসুগা ক্ল্যান নামে পরিচিত ছিল।

কলম্বিয়ার নিরাপত্তা সংস্থাগুলোর তথ্য অনুযায়ী, এই দলটি হচ্ছে দেশের সবচেয়ে শক্তিশালী অপরাধী চক্র। যুক্তরাষ্ট্রের কর্তৃপক্ষের বর্ণনা অনুযায়ী, এরা হচ্ছে ভারী অস্ত্রে সজ্জিত চরম সহিংস একটি দল।

কলম্বিয়ার অনেকগুলো প্রদেশে এই চক্রটি বিস্তৃত। তাদের বিদেশেও ভালো যোগাযোগ রয়েছে। এরা মাদক ব্যবসা, মানবপাচার, অবৈধভাবে সোনা আহরণ এবং চাঁদাবাজির সঙ্গে জড়িত রয়েছে।

ধারণা করা হয়, এই দলে ১৮শ’ সশস্ত্র সদস্য রয়েছে; যাদের চরম ডানপন্থী আধাসামরিক বাহিনীগুলো থেকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, হন্ডুরাস, পেরু ও স্পেন থেকেও এই চক্রের সদস্যদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

কলম্বিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্র, এমনকি রাশিয়া মাদক পাচারের রুটগুলো নিয়ন্ত্রণ করে এই চক্রটি।

তবে কলম্বিয়া সরকার মনে করে, সাম্প্রতিক সময়ে তারা এই দলটিকে অনেকটাই দমন করতে পেরেছে। কারণ, তাদের অভিযানে এদের অনেক নেতা জঙ্গলের প্রত্যন্ত এলাকাগুলোয় লুকাতে বাধ্য হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে মাদক পাচার, পুলিশ কর্মকর্তাদের হত্যা এবং শিশুদের নিয়োগ দেওয়ার মতো অনেকগুলো অভিযোগের মুখোমুখি হতে হবে অ্যাতোনিয়েলকে।

২০০৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিচারে অভিযুক্ত হয়েছেন অ্যাতোনিয়েল। ফলে তাকে বিচারের জন্য বহিঃসমর্পণ চাইতে পারে যুক্তরাষ্ট্র। সেক্ষেত্রে তাকে নিউইয়র্কের আদালতেও হাজির হতে দেখা যেতে পারে। সূত্র: বিবিসি বাংলা

আগামীনিউজ/নাসির