Dr. Neem on Daraz
Dr. Neem Hakim

মেরে ফেলার ভয়-ভীতি দেখিয়ে শাশুড়িকে ধর্ষণ, জামাই গ্রেফতার


আগামী নিউজ | জেলা প্রতিনিধি, নওগাঁ প্রকাশিত: অক্টোবর ৫, ২০২২, ০১:৪৪ পিএম
মেরে ফেলার ভয়-ভীতি দেখিয়ে শাশুড়িকে ধর্ষণ, জামাই গ্রেফতার

নওগাঁঃ মেরে ফেলার ভয়-ভীতি দেখিয়ে শাশুড়িকে ধর্ষণের মামলায় জামাই ফরহাদ হোসেনকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৫) নাটোর ক্যাম্পের সদস্যরা। 

বুধবার (৫ অক্টোবর) ভোরে ঢাকার তুরাগ থানার চান্ডালভোগ জামে মসজিদের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ফরহাদ নওগাঁ সদর থানার দুবলহাটি বনগাঁ গ্রামের মৃত মান্নানের ছেলে।

র‌্যাব-৫ নাটোর ক্যাম্প থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা যায়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৮ আগষ্ট ১১ বছরের নাতি মারা গেলে মেয়েকে দেখতে জামাই ফরহাদের বাড়িতে যান ভুক্তভোগী শাশুড়ি। এর কদিন পর গত ২১ সেপ্টেম্বর খাওয়ার শেষে রাত ১০টার দিকে পাশের রুমে শাশুড়ি ঘুমিয়ে পড়ে। রাত ৩টার দিকে ফরহাদ চুপিসারে তার শাশুড়ির শয়নকক্ষে প্রবেশ করে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়।

ভুক্তভোগী বুঝতে পেরে তার মেয়েকে ডাক দেওয়ার চেষ্টা করলে ফরহাদ মুখ চেপে ধরে এবং মেরে ফেলার ভয়-ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করে। তিনি ভয়ে এবং লজ্জায় কাউকে বিষয়টি জানায়নি। পরদিন বিকেল ৪টার দিকে ভুক্তভোগী শারীরিকভাবে অসুস্থ হলে বিষয়টি তার মেয়েকে জানায় এবং নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেয়। পরবর্তীতে তিনি বাদী হয়ে নওগাঁ সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ঘটনার পর থেকে আসামি ফরহাদ পলাতক ছিলেন। পরবর্তীতে র‌্যাব-৫ নাটোর ক্যাম্প কোম্পানি অধিনায়ক ফরহাদ হোসেন এবং কোম্পানি উপ-অধিনায়ক রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে ঢাকার তুরাগ থানাধীন চাণ্ডালভোগ জামে মসজিদের সামনে থেকে পলাতক আসামি ফরহাদকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে নওগাঁ সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়।

নওগাঁ সদর মডেল থানার (ওসি) ফয়সাল বিন আহসান বলেন, র‌্যাবের অভিযানে ধর্ষণ মামলার এক আসামিকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। দুপুরে তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

এমবুইউ