Dr. Neem on Daraz
Dr. Neem Hakim

পিস্তল নিয়ে আদালতে হাজিরা দিতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা


আগামী নিউজ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: জুলাই ৪, ২০২২, ১০:১৯ এএম
পিস্তল নিয়ে আদালতে হাজিরা দিতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা

গাজীপুরঃ জামিন নিতে এসে আইনজীবী ও উপস্থিত সকলের চোখ ফাঁকি দিয়ে পিস্তল নিয়ে আদালতের এজলাসে ঢোকেন বন মামলার আসামি মনসুর আহমেদ। এ নিয়ে আদালতে শুরু হয় হৈ চৈ। রোববার (০৩ জুলাই) দুপুরে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বন আদালত-২ এ ঘটনাটি ঘটে।

মনসুর আহমেদ গাজীপুরের জয়দেবপুর থানার পিরুজালি গ্রামের প্রয়াত আব্দুল করিমের ছেলে। পিস্তলটি তার শার্টের নিচে কোমরে ঢাকা ছিল।

পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা গেছে,  আইনজীবী ও উপস্থিত সকলের চোখ ফাঁকি দিয়ে নিজের লাইসেন্স করা পিস্তল নিয়েই আদালতের এজলাসে ঢুকে পড়েন মনসুর আহমেদ। বন মামলার আসামি মনসুর লাইসেন্স করা পিস্তল নিয়ে জামিনের জন্য আদালতে হাজির হন। কিন্তু বিচারক তার জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিলে তার সঙ্গে থাকা পিস্তলটি সবার নজরে আসে। এই নিয়ে আদালতে শুরু হয় হৈ চৈ।   

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মনসুর নিশ্চিত ছিলেন আদালত তার জামিন মঞ্জুর করবেন। এ কারণে পিস্তলটি হয়তো সঙ্গে নিয়ে আদালতে প্রবেশ করেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, জেলার জয়দেবপুর থানার একটি মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে এসেছিলেন মনসুর নামে ওই ব্যক্তি। এ সময় বিচারক জামিন না-মঞ্জুরের আদেশ দিলে মনসুর তার সঙ্গে অস্ত্র আছে বলে জানায়। যেহেতু বিচারক আগেই তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে তাই তাকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোশারফ হোসেন বলেন, অস্ত্র উদ্ধারের পর সেটি থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আর মনসুরকে আদালত জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।  

তিনি জানান, আদালতে অস্ত্র নিয়ে প্রবেশ করার ঘটনায় তার বিরুদ্ধে রোববার রাতেই তিনি বাদী হয়ে সদর থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে একটি মামলা করেছেন।

এমবুইউ