Dr. Neem on Daraz
Dr. Neem Hakim

লক্ষ্মীপুরে স্কুল শিক্ষকের উপর ছাত্রের নেতৃত্বে হামলা


আগামী নিউজ | জেলা প্রতিনিধি, লক্ষ্মীপুর প্রকাশিত: মে ২৮, ২০২২, ১২:৪৯ পিএম
লক্ষ্মীপুরে স্কুল শিক্ষকের উপর ছাত্রের নেতৃত্বে হামলা

লক্ষ্মীপুরঃ সদর উপজেলার টুমচর আসাদ একাডেমীর ভৌত বিজ্ঞান শিক্ষক মো: হেলাল উদ্দিনের উপর হামলা ঘটনার ঘটেছে। শনিবার সকালে বিদ্যালয়ের পাশে এ ঘটনা ঘটেছে। বিদ্যালয়ের প্রাক্তণ ছাত্র মো: মুরাদের নেতৃত্বে ৬-১০ জন এই হামলা অংশ নেয় স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। গুরুতর আহত শিক্ষককে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের ভর্তি করা হয়েছে। তিনি সদর উপজেলার মান্দারী ইউনিয়নের গন্ধব্যপুর গ্রামের লকিয়ত উল্যার পুত্র। আর ছাত্র মুরাদ টুমচর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের আবুল কাসেমের পুত্র।

হাসপাতাল ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে বাড়ি থেকে নিজ ব্যবহৃত মটরসাইকেল যোগে শিক্ষক হেলাল বিদ্যালয়ের প্রবেশ করার পূর্বে মুরাদসহ ৬-৮ জন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে রাস্তায় প্রথমে শিক্ষককে থামান। এসময় শিক্ষক কারণ জানতে চাইলে মুরাদ বলে ২০১৭ সালের তোর কারণে টেষ্ট পরীক্ষায় অংশ নিতে পারিনি। তোর কারণে বিদ্যালয়ের থাকার সময় পরীক্ষায় নকল করতে পারিনি। আজ তোকে পাইছি এ বলে তাকে এলোপাতাড়ি কিল ঘুসি ও শরীরের বিভিন্ন হামলা শুরু করে। এক পর্যায়ে গুরুতর আহত অবস্থায় শিক্ষককে রাস্তায় ফেলে চলে যায়। এসময় তার মটরসাইকেল ও ভাংচুর করা হয়। পরে খবর পেয়ে বিদ্যালয় থেকে অন্যান্য শিক্ষকরা এসে উদ্ধার করে হেলালকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

হাসপাতালের চিকিৎসাধীন শিক্ষক হেলাল উদ্দিন জানান, বিগত ২০১৭ সালে টেষ্ট পরীক্ষায় ফেল করার কারণে মুরাদ পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি ওই সময়ে দায়িত্বরত অধ্যক্ষ তাকে সুযোগ দেয়নি। আমি কোন অন্যায় করিনি তা পরও মুরাদের নেতৃত্ব ৬-৮ জন সন্ত্রাসী আমার উপর হামলা করে এবং মটরসাইকেল ভাংচুর করে। হামলকারী সবাইকে আমি সবাইকে চিনিনা শুধু মুরাদকে চিনতে পেরেছি।

টুমচর আসাদ একাডেমী অধ্যক্ষ ফারজানা নুর জানান, বিষয়টি খুবই দু:খ জনক। প্রাক্তণ ছাত্র কি ভাবে শিক্ষকের উপর হামলা করে। আমরা বিদ্যালয়ে সব শিক্ষক বসেই আজই সিদ্ধান্ত নিবো এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া প্রক্রিয়া চলছে।

বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য সৈয়দ মোজাম্মেল হোসেন জানান, ছাত্র হয়ে শিক্ষকের উপর এ ভাবে প্রকাশ্যে হামলা মেনে নেওয়া যায়না। আশা জড়িতরা শাস্তি পাবে। বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোস্তফা কামাল জানান বিষয়টি জানা নেই। এ ব্যাপারে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মো: রবিউল ইসলাম খান/এমবুইউ