Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

যারা তালেবানদের মুক্তিযোদ্ধা বানাতে চায় তারা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি নয়: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী


আগামী নিউজ | উত্তরাঞ্চল প্রতিনিধি প্রকাশিত: অক্টোবর ২২, ২০২১, ০৪:১৬ পিএম
যারা তালেবানদের মুক্তিযোদ্ধা বানাতে চায় তারা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি নয়: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

ছবি : আগামী নিউজ

যারা তালেবানদের মুক্তিযোদ্ধা বানাতে চাইছে তারা কখনই মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি হতে পারে না। দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রতিও বিনষ্ট করতে চাইছে তারা। বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার বাংলাদেশে তা হবে না। শুক্রবার দুপুরে নীলফামারীর সৈয়দপুরে উত্তরাঞ্চলের নান্দনিক কমিউনিটি সেন্টার কমপ্লেক্স উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওইসব কথা বলেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এমপি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উপলক্ষে কমিউনিটি সেন্টার হল রুমে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র রাফিকা আকতার জাহান। এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য বলেন নীলফামারী-৪ আসনের সংসদ সদস্য আহসান আদেলুর রহমান আদেল, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদ, নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান, পুলিশ সুপার মোখলেছুর রহমান বিপিএম। এ সময় মঞ্চে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মোখছেদুল মোমিন, এলজিইডির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোসলেম উদ্দিন, এমজিএসপির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোজাক্কের জাহিদ, প্যানেল মেয়র-১ শাহীন হোসেন, প্যানেল মেয়র-২ ্আবুল কাশেম দুলু সরকার, প্যানেল মেয়র-৩ সাবিয়া সুলতানা, সিনিয়র কাউন্সিলর শাহীন আকতার বিএসসি, কাজী জাহানারা বেগম, বেলাল আহমেদ, আব্দুল খালেক সাবু, কাজী মনোয়ার হোসেন হায়দার প্রমুখ।

মন্ত্রী তার বক্তব্যে আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন এ দেশটি হবে আপামর মানুষের। কিন্তু ৭৫’র ১৫ আগস্ট জাতির জনকসহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করে দেশকে পিছিয়ে দেয়া হয়। দীর্ঘ ২১ বছর পর আবার আ’লীগ ক্ষমতায় এসে দেশের হাল ধরে। এরপর মাঝখানে আবার ক্ষমতা থেকে সরে গেলে উন্নয়নের গতি থেমে যায়। বিগত ২০০৯ সালে আ’লীগ ক্ষমতা এসে কৃষি, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ খাতে প্রভুত উন্নতি করেছে। শিক্ষাখাতকে নতুন করে ঢেলে সাজানো হচ্ছে। আশা করি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা অবশ্যই আমরা প্রতিষ্ঠা করতে পারব। তিনি তার বক্তব্যে আরো বলেন সৈয়দপুরের উন্নয়নে সকল ধরনের সহযোগিতা করা হবে। এমপি আদেল তার বক্তব্যে বলেন পিছিয়ে পড়া এ জনপদে অনেক সমস্যা রয়েছে। সেই সমস্যাগুলো যেন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেখা হয়।

সিনিয়র সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, নীলফামারী জেলা শহরের চেয়ে সৈয়দপুর অনেক বেশি উন্নত। এই শহরে নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধি করতে সকল সহযোগিতা করা হবে। সৈয়দপুর পৌরসভা হবে দেশের মডেল।

সভাপতির বক্তব্যে মেয়র রাফিকা আকতার জাহান বলেন, নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধি করতে হেলদি সিটি গড়তে পৌর কর্তৃপক্ষ যে উদ্যোগ নিয়েছে, সেই উদ্যোগ সফল করতে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। এজন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী, সচিবসহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যাতে নেক নজর থাকে সে বিষয়েও তিনি সহযোগিতা চান। 

আগামীনিউজ/নাসির