Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত বেড়ে ৭


আগামী নিউজ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: অক্টোবর ২২, ২০২১, ১০:৫১ এএম
রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত বেড়ে ৭

ছবিঃ সংগৃহীত

কক্সবাজারঃ উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে সাতজন হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে ১০ থেকে ১২ জন। তাদের মধ্যে চার জনকে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ভোরে উখিয়ার ১৮নং ক্যাম্পে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- উখিয়ার বালুখালী-২ এর ইদ্রিস (৩২), বালুখালী-১ এর ইব্রাহীম হোসেন (২২), ১৮ নম্বর ক্যাম্পের এইচ ব্লকের বাসুন্দা নুরুল ইসলামের ছেলে আজিজুল হক (২৬) ও আবুল হোসেনের ছেলে মো. আমীন (৩২), হাফেজ নুর হালিম (৪৫), তিনি এফ/২২ ক্যাম্প-১৮ এর বাসিন্দা। তার বাবার নাম মো. নবী। মৌলভী হামিদুল্লাহ (৫০) ও নূর কায়সার (১৫)। তার বাবার নাম নূর মোহাম্মদ। 

এ ঘটনায় অস্ত্রসহ মুজিবুর রহমান নামে একজনকে আটক করেছেন ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা।

৮ আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের এসপি শিহাব কায়সার খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রোহিঙ্গাদের দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলিতে সাতজন নিহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ বেশ কয়েকজন ক্যাম্পের এমএসএস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
তিনি বলেন, কী কারণে সংঘর্ষ হয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়। অস্ত্রসহ একজনকে আমরা আটক করেছি। পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক আছে।

এদিকে, ঘটনার খবর পেয়ে কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে জেলা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, তিনি ইতোমধ্যে ৬টি মৃতদেহ নিয়ে ক্যাম্প থেকে উখিয়া থানায় উপস্থিত হয়েছেন। আরও একটি মৃতদেহ ক্যাম্প থেকে থানায় আসার পথে। সেগুলো কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হবে ময়নাতদন্তের জন্য। এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে ও জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

এদিকে, হঠাৎ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনায় আশপাশের গ্রামগুলোতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। তবে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান পিপিএম জানিয়েছেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কঠোর অবস্থানে রয়েছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা।

আগামীনিউজ/বুরহান