Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

যৌতুক নিয়ে তুমুল সংঘর্ষের মধ্যে নববধূকে নিয়ে পালালেন বর


আগামী নিউজ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: অক্টোবর ১৯, ২০২১, ০১:১৬ পিএম
যৌতুক নিয়ে তুমুল সংঘর্ষের মধ্যে নববধূকে নিয়ে পালালেন বর

প্রতীকী ছবি

ভোলাঃ বিয়ের মূল আনুষ্ঠানিকতা ভালোয় ভালোয় শেষ হয়েছে। কিন্তু বিপত্তি বাঁধে বউভাতে। বরের বাড়িতে কনেপক্ষ যাওয়ার পর থেকেই শুরু হয় যৌতুক নিয়ে কথাবার্তা। এর মধ্যে ঘটকও চেয়ে বসেন মোটা অঙ্কের সম্মানী। বিপাকে পড়ে কনেপক্ষ। এমনকি খেতে বসেও বরপক্ষের লোকজন নানাভাবে বিদ্রুপ করতে থাকে।

বৌভাত অনুষ্ঠানে খাবার টেবিলে পানি দিতে বলায় কনেপক্ষের বিরুদ্ধে বরপক্ষকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় কনের মা, ভাই-বোনসহ ৫ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় কনের বাবা আইয়ুব আলী মনপুরা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। এরই মধ্যে নববধূকে নিয়ে পালিয়ে গেছেন বর।
ঘটনাটি ঘটেছে ভোলার মনপুরায়। রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের চরগোয়ালিয়া গ্রামের ৬নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার সকালে এ ঘটনায় কনের বাবা আইয়ুব আলী মনপুরা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

সংঘর্ষে কনের মা, ভাই-বোনসহ পাঁচ জন আহত হয়েছেন। স্থানীয়রা তাঁদের মনপুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন। আহতদের সবার বাড়ি উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের চরগোয়ালিয়া গ্রামে।

কনের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ের আল-আমিনের সঙ্গে গত বৃহস্পতিবার তানজিলা আক্তার মিমের বিয়ে হয়। বিয়ের দুই দিন পর কনেপক্ষের লোকজন রবিবার রাতে বরের বাড়িতে বৌভাত অনুষ্ঠানে যান। সেখানে ঘটক রুবেল কনেপক্ষের কাছে ১০ হাজার টাকা দাবি করেন। আর বরপক্ষের লোকজন বরের জন্য যৌতুক ও কনের জন্য জামাকাপড় নিয়ে আসেনি কেন, এ নিয়ে কটূক্তি করতে শুরু করে। এ সময় কনেপক্ষ খাবার টেবিলে পানি দিতে বললে বরপক্ষ ক্ষেপে যায়। একপর্যায়ে ঘটক রুবেলসহ পাঁচ-সাতজন কনেপক্ষকে মারধর শুরু করে। ঘটনার একপর্যায়ে কনেকে নিয়ে বর পালিয়ে যান।

দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান অলি উল্লা কাজল বলেন, বউভাত অনুষ্ঠানে মারামারির ঘটনা শুনেছি। কনেপক্ষকে ডেকে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পেয়েছেন কি-না জানতে চাইলে মনপুরা থানার ওসি সাইদ আহমেদ বলেন, বউভাত অনুষ্ঠানে কনেপক্ষের লোকজনকে মারধরের ঘটনায় কনের বাবা আইয়ুব আলী বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন। তদন্তসাপেক্ষে আইনি নেওয়া হবে।

আগামীনিউজ/বুরহান