Agaminews
Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

সৈয়দপুরে জমি জবর দখলে বাধা দেয়ায় কৃষকের কান দিল কেটে 


আগামী নিউজ | জিকরুল হক, উত্তরাঞ্চল প্রতিনিধি প্রকাশিত: জুলাই ৩১, ২০২১, ০৩:২২ পিএম
সৈয়দপুরে জমি জবর দখলে বাধা দেয়ায় কৃষকের কান দিল কেটে 

ফাইল ছবি

নীলফামারীঃ জেলার সৈয়দপুরে নিজ ভোগদখলীয় জমি জবর দখলে বাধা দেয়ায় অঙ্গহানীর শিকার হলেন এক কৃষক। ওই কৃষকের নাম গোলাম মোস্তফা আহম্মেদ মন্জূ (৫৮) । এই ঘটনায় শুক্রবার ৩০ জুলাই রাতে স্থানীয় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে । মামলার বাদী হয়েছেন ঘটনার শিকার মন্জুর স্ত্রী ওয়ােহিদা বেগম । আর এ মামলায় আসামী করা হয়েছে ২ জনকে । তারা হলেন ওবাইদুল হক (৬০) ও শাহনাজ বেগম (৫৫) । ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের ব্রহ্মোত্তর গ্রামের তোকদার পাড়ায় ।

মামলার বাদী ওয়াহিদা বেগম অভিযোগ করে বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমার চাচাতো ভাসুর ওবাইদুল হক আমার স্বামীর ভোগদখলীয় কবলা খরিদা ৩০ শতক জমি  ৩০ জুলাই শুক্রবার সকালে ভাড়া করা ট্রাক্টর দিয়ে চাষ করার মাধ্যমে জবর দখল করতে থাকে । এ খবর জানতে পেরে আমার স্বামী ঘটনাস্থলে পৌছে বাধা দেয় । এমন অবস্থায় আসামী ওবাইদুল হক ও তার স্ত্রী শাহনাজ বেগম অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে । এমন অবস্থায় আসামী ওবাইদুল হক পূর্ব শত্রুতার প্রতিশোধ নিতে আমার স্বামীকে হত্যা করতে গলা টিপে শ্বাসরোধ করার চেষ্টা করে । এমতাবস্থায় আমার স্বামী প্রাণে বাচতে আসামীকে ধাক্কা  দিলে জীবন রক্ষা পায়। এর পর অঙ্গহানী করতে আসামী ওবাইদুল আমার স্বামীর বাম কান কামড়িয়ে কেটে ফেলে দেয় । এ সময় অপর আসামী শাহনাজ বেগম আমার স্বমাীকে দেশি অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে পিঠে মুখে ফুলা জখম করে । আসামীদ্বয়ের মারপিটের হাত থেকে প্রাণে বাচতে আমার স্বামী আর্তচিৎকার শুরু করলে প্রতিবেশিরা ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে আমার স্বামীকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে । এরপর অটোবাইক যোগে আমি আহত স্বামীকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করি । কিন্তু সময় গড়াতে থাকলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দ্রুত আমার স্বামীর শারীরিক অবনতি ঘটে । এমন অবস্থায় তার উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন । বর্তমানে সেখানে চিকিৎসা চলছে ।

তবে কর্তব্যরত চিকিৎসক  জানিয়েছেন, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে রোগীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে। বর্তমান অবস্থাও সংকটাপন্ন । তবে ৭২ঘন্টা পর বোঝা যাবে রোগী কতটুকু সুস্থতার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ।

মামলার বাদী আরও জানান, আমার স্বামীর এমন অবস্থায়েও প্রতিপক্ষরা নানা ধরনের ভয়ভীতি ও হুমকি ধামকি অব্যাহত রেখেছে। তারা বলছে (প্রতিপক্ষ) যে ভাবেই হোক ওই ৩০ শতক জমি তারা দখলে নিবে । এতে করে শুধু মারপিট নয়, প্রয়োজনে হয়রানীমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার স্বামীর পরিবারের অনন্য সদস্যদেরও হেনস্থা করে হলেও তারা জমি দখলে নিবে ।

এদিকে মামলার অভিযোগ বিষয়ে জানতে আসামী ওবাইদুল হকের  সঙ্গে সরেজমিনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে না পাওয়ায় তার মন্তব্য যানা সম্ভব হয়নি ।

থানায় মামলা দায়েরের বিষয়ে সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসনাত খান সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন তদন্ত সাপেক্ষে আসমাীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে ।