Agaminews
August

অদম্য নারীর স্বেচ্ছাসেবার অগ্রপথিক "জাগ্রত দিনাজপুর"


আগামী নিউজ | দিপংকর রায়, দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি প্রকাশিত: জুন ১৮, ২০২১, ১১:২১ এএম
অদম্য নারীর স্বেচ্ছাসেবার অগ্রপথিক

ফাইল ফটো

দিনাজপুরঃ স্বেচ্ছাসেবক সংগঠন "জাগ্রত দিনাজপুর" সেচ্ছাশ্রম দিয়ে পশু প্রানি আর  মানব সেবায় নিজেদের উজাড় করে দিয়ে মহামারী করোনা সংক্রমণ রোধেও দায়িত্ব পালন করছেন।

বিভিন্ন জায়গায় বিচরণ চোখে পড়ে "জাগ্রত দিনাজপুরের” দুস্থদের সাহায্য ও চিকিৎসার ব্যবস্থা,পাগল ও পথ শিশুদের দেখভাল আর শহরের কুকুরগুলোকে একবেলা খাওয়ানো ইত্যাদি ইত্যাদি। পাশাপাশি জেলা প্রশাসক, পৌরসভা, টিসিবি পন্য বিতরণ, সিভিল সার্জন, উপজেলা প্রসাশনের স্বেচ্ছা সেবায়ও বিচরন তাদের।

আগামী নিউজের সাথে প্রান খুলে কথা বললেন অদম্য নারী "জাগ্রত দিনাজপুর" টিম লিডার ৩৯ বছর বয়সী আফসানা আফরোজ (ইমু)।

কেমন আছেন?

★আলহামদুলিল্লাহ খুব ভালো।

টিমের নাম কি? আর কত জন সদস্য আপনারা?

★ওহ "জাগ্রত দিনাজপুর"। আমার সারথি ১৭–২২বছরের ইমন, নূর, সিজান, ইসমাইল, মিশু, অয়ন, নাবিলা, ফাইম, শিল্পী, সন্ধ্যা, কায়েসরা সহ ৩০ জন।

পাশাপাশি আর কি করেন?

★ কিছু করি না। আমি গৃহিনী, দুই মেয়ে আর এই আমার কাজ, স্বপ্ন অন্যের পাশে দাঁড়ানো।

স্বামী বাধা বা বিরক্ত হন না?

★উনি জার্মানীতে, নাহ্ বাধা বা বিরক্তি নেই, আমি সন্তান সংসারটা গুছিয়েই বের হই।   

এখন টিমের কাজ কি?

★দিনাজপুরে যে করোনা পরিস্থিতি জেলা প্রশাসনের সাথে কোভিড আক্রান্তদের বাড়িতে গিয়ে লাল পতাকা লাগনো, বিভিন্ন পয়েন্টে গিয়ে স্বাস্থ্য সচেতনতায় মাস্ক পরিধান, করোনা ঝুঁকি মুক্ত থাকতে প্রচারণা ইত্যাদি।

অত্যন্ত ঝুঁকির কাজ?

★হ্যাঁ কি করব বলেন? আমরা ঝুঁকি না নিলে তো দেশ জাতি ঝুঁকিতে আর মানব সেবার ব্রত নিয়ে বসে থাকতে পারি না।

কোভিডের পাশাপাশি যে সেবার কাজ গুলো করেন এগুলোর অর্থ কোথায় পান? 

★আমরা কারও কাছে চাই না। ভালোবেসে যারা দেয় শুধু তাদের কাছ থেকেই নেওয়া হয়। অনেকেই দেন যেমন, ইউএনও স্যার, পাটোয়ারী সাহেব, মেয়র সাহেব।

কে,  কি দিয়েছে আপনাদের?

★ইউ এন ও স্যার দুইটা হ্যান্ড মাইক দিয়েছেন, কুকুরের খাবার হিসেবে ৫০ কেজির ২ বস্তা চাল, মেয়র সাহেব ১৪ টি ছাতা দিয়েছেন, পাটোয়ারী সাহেব ৫০ কেজি চাল দিয়েছেন, রমজানে ইফতার দিয়েছেন  প্রতিদিন ৩৫/৫০ প্যাকেট যা আমরা দুস্থদের খুঁজে খুঁজে বিতরণ করেছি, কেউ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখে অনুপ্রাণিত হয়ে টাকাও পাঠায়। যা দুস্থদের পুনর্বাসন, চিকিৎসা ও পথ শিশুদের জন্য খরচ করি।

কুকুর গুলোর খাওয়া?

★ওদের রাতের বেলা খাবার দেই।

মাঝে মধ্যে অনেক রাতে যেখানে সেখানে ছুটে যান ভয় হয় না?

★মুসকি হেসে লাগে তো মনের সাহসেই ভয় চলে যায়। কারন মানুষের অসহায়ত্ব আমি সহ্য করতে পারি না। এই তো কয়েক দিন আগে এক খালা হারিয়ে গিয়েছিল তাকে তার বাসায় পৌছে দিল আমার টিম। রাস্তা থেকে তুলে একজনকে থাকার বন্দোবস্ত করে দিয়েছি আমরা। এক ভাই উনার জন্য টাকা পাঠিয়েছিলেন পৌছে দিলাম।

কোন বাধাবিপত্তি ? 

★বাধা বিপত্তি থাকবেই এগুলো নিয়ে ভাবি না, আমরা মেয়েরা সব সময়ই বাধা বিপত্তির সামনেই দাড়িয়ে থাকি।

আপনার টিমের সদস্যরা তো অনেক ছোট?

★হ্যাঁ ওরা ছোট  অনেক ভাল ওরা পরিশ্রমী। আমি চিন্তা করি আমার সংস্পর্শে থেকে অন্তত মাদকের ছোবল থেকে দূরে ও মানবতা হৃদয়ে জাগ্রত হোক।

প্রশাসনের সাথে সেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করতে কেমন লাগছে?

★খুবই ভালো লাগচ্ছে ডিসি , সিভিল সার্জন, এডিসি, পুলিশ সুপার, ইউএনও স্যারসহ সবাই ভাল মানুষ। উনারা দিনাজপুরকে অনেক ভাবেন আর চিন্তা করেন।

জাগ্রত দিনাজপুরের ভবিষ্যৎ চিন্তা কি ?  

★ জাগ্রত দিনাজপুর সবার জন্য উন্মুক্ত যখন যেখানে ডাকবে সাড়া পাবে, সারাজীবন মানবতার সেবায় নিজেদের উজাড় করে দেওয়ার চেষ্টা করব। ভাল থাকুক পৃথিবী ভালো থাকুক মানুষ, করোনা মহামারি থেকে আল্লাহপাক তারাতাড়ি মুক্তি দিন। মানবতার দুয়ার খুলে দিক সবাই। আগামী নিউজকেও আমার অন্তরের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ আর পথ চলা সুগম হোক। আসি, ভালো থাকবেন  কাজ আছে পয়েন্টে যেতে হবে।