Agaminews
 অমর একুশে
Dr. Neem Hakim

পরকীয়ার জেরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড


আগামী নিউজ | রাজীবপুর-রৌমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধি প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৯, ২০২১, ০৫:১১ পিএম
পরকীয়ার জেরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড

সংগৃহীত

কুড়িগ্রামঃ জেলার রাজীবপুর উপজেলার কোদালকাটি ইউনিয়নের চরসাজাই নয়াপাড়া গ্রামে পরকিয়ার জেরে স্ত্রী শাহিনা বেগমকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় স্বামী বকুল মিয়াকে মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়েছে। 
 
আজ মঙ্গলবার ফাঁসিতে ঝুলিয়ে তার মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার এই রায় দেন জেলা ও দায়রা জজ আব্দুল মান্নান। রায়ে মামলার অপর আসামি নুরন্নাহারকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় মামলার আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
 
রায়ের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবলিক প্রসিকিউটর এসএম আব্রাহাম লিংকন।এই মামলার আসামির পক্ষে  মামলাটি পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মোঃফখরুল ইসলাম।
 
আদালত এবং মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বিগত ২০০৫ সালের দিকে পার্শ্ববর্তী জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার কারখানা পাড়া (ডাংধরা) এলাকার শামছুল হকের কন্যা শাহিনা বেগম (২০) এর সাথে কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলার চরসাজাই নয়াপাড়া গ্রামের মৃত আজিজল হকের পুত্র বকুল মিয়ার (২৫) বিয়ে হয়। 
 
বিয়ের পর বকুল মিয়ার সাথে তার বড় ভাই বাবুল মিয়ার স্ত্রী নুরন্নাহার বেগমের পরকিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ভাবির সাথে স্বামীর এই অবৈধ সম্পর্ক টের পেয়ে স্ত্রী শাহিনা বেগম বাঁধা দিলে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। এরই জেরে বিগত ২০০৭ সালে ২ ডিসেম্বর সকাল ৭টার দিকে স্ত্রী শাহিনা বেগমকে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর ঘরের ভিতর লাশ ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার করে। 
 
ওই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়। পরে ময়না তদন্তে শ্বাসরোধ করে হত্যার রিপোর্ট আসলে নিহত শাহিনার পিতা শামছুল হক বাদি হয়ে বকুল মিয়া ও তার ভাবি নুরন্নাহারকে আসামি করে বিগত ২০০৮ সালের ১৬ জানুয়ারি থানায় হত্যা মামলাটি দায়ের করেছিলেন।
 
দীর্ঘদিন ধরে এই মামলার বিচার চলাকালে ২০ জন স্বাক্ষীর মধ্যে ১৭ জন আদালতে স্বাক্ষী প্রদান করে আদালতে।
 
আগামীনিউজ/এএস