Agaminews
Dr. Neem Hakim

টাঙ্গাইলে বিড়ি শ্রমিকদের উপর পুলিশী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি


আগামী নিউজ | টাঙ্গাইল প্রতিনিধি প্রকাশিত: জুন ২৪, ২০২০, ০৬:০০ পিএম
টাঙ্গাইলে বিড়ি শ্রমিকদের উপর পুলিশী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি

ফাইল ছবি

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের খুদিরামপুরে বাজেটে মূল্যন্তর প্রত্যাহারের জন্য আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসুচিতে বৃহত্তর টাঙ্গাইল অঞ্চলের বিড়ি শ্রমিকদের উপর পুলিশী লাঠি চার্জ ও হামলার প্রতিবাদে সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করা হয়েছে। বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দর দাবি এনবিআরের চেয়ারম্যানের নির্দেশে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধনে পুলিশ এই হামলা করে।

বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধন কর্মসুচিতে কয়েক হাজার বিড়ি শ্রমিক অংশ গ্রহন করেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন টাঙ্গাইল জেলা বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি নুর তাজ, সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান ও সদস্য মাহমুদুল হাসান প্রমুখ।

উল্লেখ্য গত মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের সদর উপজেলার খুদিরামপুর বাইপাসে মানববন্ধন কর্মসুচি পালনকালে পুলিশ লাঠি চার্জ করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। শ্রমিকদের শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসুচিতে পুলিশী লাঠি চার্জ ও হামলার প্রতিবাদ জানায় শ্রমিকনেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধন কর্মসুচিতে বক্তারা বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে প্রতি প্যাকেট বিড়িতে ট্যাক্স বৃদ্ধি করা হয়েছে ৪ টাকা। যা শতকরা বৃদ্ধিহার ২৮.৫৭ %। অপরদিকে কমদামী সিগারেটে প্রতি প্যাকেটে দাম বৃদ্ধি হয়েছে মাত্র ২টাকা। যা শতকরা বৃদ্ধির হার মাত্র ৫.৪১ %। অর্থাৎ সিগারেটের চেয়ে বিড়িতে প্যাকেট প্রতি ২টাকা বেশি এবং শতকরা ২৩.১৬% বেশি। এটি বিড়ি শিল্পের উপর চরম বৈষম্যমূলক আচরণ। বিদেশী সিগারেট কোম্পানীকে সুবিধা দিতেই এ বৈষম্য করা হয়েছে। যা দেশীয় শিল্পের সাথে বিমাতাসূলভ আচরণ ছাড়া কিছু নয়। দীর্ঘদিন ধরে বিড়ি শিল্প ধ্বংস করার জন্য যে গভীর ষড়যন্ত্র ছিল প্রস্তাবিত বাজেটে তা প্রতিফলিত হয়েছে। তাই বিড়ি শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে এবং এই শিল্পকে ভারতের ন্যায় কুটির শিল্প ঘোষনার দাবি জানানো হয়।

আগামীনিউজ/শফিকুজ্জামান/জেএস

Dr. Neem