Agaminews
Dr. Neem

রাজবাড়ীতে করোনা রোধে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে মাঠে সেনাবাহিনী


আগামী নিউজ | রাজবাড়ী প্রতিনিধি প্রকাশিত: মার্চ ২৬, ২০২০, ০৩:৫৫ পিএম
রাজবাড়ীতে করোনা রোধে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে মাঠে সেনাবাহিনী

রাজবাড়ীতে করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে স্থানীয় প্রশাসনকে সহযোগীতা করতে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী। জেলা শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সেনা সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে। রাস্তা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে যাতে সাধারন মানুষ জমায়েত হতে না পারে সে সব স্থানে সেনা সদ্যদের টহল অব্যাহত থাকবে।

এ ছাড়া জেলা প্রশাসন, পুলিশ , ডিবি ,আনসার,সহ প্রত্যেক প্রশাসনের পক্ষ থেকে নজরদারি রাখা হয়েছে। সাধারন মানুষ যাতে অহেতুক তাদের ঘরের বাইরে বের না হয় এবং বাজারে অপ্রয়োজনে চলাচল করতে না পারে সে লক্ষে প্রশাসনের টহল জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থান ,রাস্তা ঘাট সহ বিভিন্ন স্থানে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সে পক্ষ থেকে ব্লিচিং পাউডার মিশ্রিত পানি দিয়ে জীবানু মুক্ত করা হচ্ছে প্রতিদিন। বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যাক্তি উদ্যোগে করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে জনগনের মাঝে বিনামূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজর,সাবান,মাস্ক ও বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জাম বিতরন করছেন।

করোনার প্রাদৃর্ভাব কমাতে গত দুই দিনদিন যাবৎ সব ধরনের মার্কেট, দোকান বন্ধ রা খা হয়েছে শুধু খোলা রাখা হয়েছে ঔষধ ,কাচা বাজার ও মুদি সামগ্রীর দোকান। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে দৌলতদিয়ার সবচাইতে জনসমাগম এলাকার পতিতালয় ও লঞ্চ পারাপার। চলাচল বন্ধ রয়েছে সব কটি ট্রেন। 

শুধু যানবাহন পারাপারের জন্য ফেরি সার্ভিস চালু রাখা হয়েছে। তবে ঢাকা সহ বিভিন্ন স্থান থেকে বাড়ি ফিরতে যানবাহন না থাকায় ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে যাত্রীদের।

জনসচেতনতায় জেলা প্রশাসন সহ বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী সংস্থা মাইকিং ও লিফলেট বিতরন করছে। কেউ যেন আতঙ্কি না হয়, শুধু সকলকে পরিচ্ছন্ন রাখতে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া,মাস্ক পড়া সহ ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতা বজায় থাকতে প্রচারনা চালানো হচ্ছে।

সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ নুরুল ইসলাম জানান, এ পর্যন্ত রাজবাড়ীতে ৫৮৭ জন বিদেশ ফেরতকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। আর গত ২৪ ঘন্টায় ৫১ জন নতুন করে হোম কোয়ারেন্টিনে রেখেছেন। ২৪ ঘন্টায় কোয়ারেন্টিন মুক্ত হয়েছেন ৫১ জন। সদর হাসপাতালে আলাদা স্থা ১০ বেডের ইসোলেশন কর্ণার খোলা হয়েছে। তবে চিকিৎসা সেবায় নেই পর্যাপ্ত  পারসোন্যাল প্রটেকটিভ ইকুইপমেন্ট ও লজিষ্টিক সাপ্লাই। 
 


আগামী নিউজ/ তামিম 

Dr. Neem