Dr. Neem on Daraz
Dr. Neem Hakim

চাঁদের বুকে ‘রহস্যময় কুঁড়েঘরের’ সন্ধান!


আগামী নিউজ | ডেস্ক রিপোর্ট প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৭, ২০২১, ০১:১২ পিএম
চাঁদের বুকে ‘রহস্যময় কুঁড়েঘরের’ সন্ধান!

ছবিঃ সংগৃহীত

ঢাকাঃ চীনের গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইয়াতু-২ রোভার চাঁদের বুকে থাকা একটি বস্তুর রহস্যময় সন্ধান পায়। বস্তুটি দেখতে কিছুটা ঘরের মত আকৃতির হওয়ায় চীনা বিজ্ঞানীরা একে রহস্যময় কুঁড়েঘর নামে অভিহিত করেছে।

চীনের জাতীয় মহাকাশ প্রশাসনের অনুমোদন প্রাপ্ত চ্যানেল স্পেস.কম এর এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়। ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী চাঁদে পৌঁছানোর প্রায় দুই বছর পর এই রহস্যময় বস্তুর সন্ধান পেয়েছে ইয়াতু-২ রোভার।

স্পেস.কম জানিয়েছে, আচমকা উত্তরের আকাশে এই রহস্যময় বস্তুটি দেখা গিয়েছে। বস্তুটি এমনভাবে আছে দেখে মনে হচ্ছে কুঁড়েঘর। ভন কারমার ক্রেটারে কাজ চালাচ্ছে ইয়াতু-২ রোভার। একে চাঁদের অন্যতম বৃহৎ ও গভীরতম গর্ত বলে দাবি করা হয়েছে। ভন কারমার ক্রেটারে ঘোরাফেরা করছিল রোভারটি। সেই সময়ই উত্তর দিগন্তের দিকে রোভার থেকে ৮০ মিটার দূরে ওই রহস্যজনক বস্তুটি দেখতে পাওয়া গিয়েছিল।

কী এই কুঁড়েঘর? তাহলে কী এলিয়েনরা সত্যিই আছে? তাদেরই বাসস্থানের সন্ধান পেয়েছে চীনা রোভার? নভেম্বরে ঘটে যাওয়া এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতে এখন এসব প্রশ্নই মানুষের মনে। খবরটি সামনে নিয়ে এসেছে চায়না ন্যাশনাল স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন। যারা জানাচ্ছে, তাদের প্রেরিত ইয়াতু-২ রোভার চন্দ্রপৃষ্ঠে নিজের ৩৭ তম দিনে এই কুঁড়েঘরের মত বস্তুটি শনাক্ত করেছিল।

এই কুঁড়ের পাশে ছিল একটি সুবিশাল ক্রেটার। শোনা যাচ্ছে, গোটা চত্বরটিতে অনুসন্ধান চালাতে রোভারটি ২ থেকে ৩ মাস সময় নেবে। খোঁজ নিয়ে দেখা হবে, এটি আদপেই এলিয়েনদের বাসস্থান নাকী অতীতের কোনও মহাকাশযানের ধ্বংসাবশেষ। নাকী অন্য কিছু?

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে চাঁদের উদ্দেশে পাড়ি দিয়েছিল ইয়াতু-২ রোভার। ২০১৯ সালে ইয়াতু-২ চন্দ্রপৃষ্ঠে সবুজ রঙের জেল জাতীয় পদার্থের সন্ধান পেয়েছিল।

আগামীনিউজ/নাসির