Agaminews
Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

স্বামীর হোম অফিস চললে ভেঙে যাবে সংসার,অফিসের বসকে স্ত্রীর চিঠি


আগামী নিউজ | ডেস্ক রিপোর্ট প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১, ০৫:৩৯ পিএম
স্বামীর হোম অফিস চললে ভেঙে যাবে সংসার,অফিসের বসকে স্ত্রীর চিঠি

ফাইল ছবি

ঢাকাঃ করোনা মহামারির দাপটের সময় থেকেই বদলে গিয়েছে সাধারণ মানুষের কাজ করার ধরন, পড়াশোনা, অফিস-সবকিছুই। অনলাইন ও ওয়ার্ক ফরম হোম এই দু'টিই এখন রোজকার জীবনে প্রবেশ করেছে। প্রথমে ব্যাপারটা বেশ মজাদার-চ্যালেঞ্জিং লাগলেও এবার ব্যাপারটায় বিরক্ত বোধ করছেন অনেকেই। তেমনই একটি মজার চিঠি এবার ভাইরাল নেটাপাড়ায়।

চিঠিতে দেখা যাচ্ছে, এক স্ত্রী তার স্বামীর বসকে ওয়ার্ক ফরম হোম শেষ করার আবেদন জানিয়েছেন। ভারতের নামজাদা শিল্পপতি হর্ষ গোয়েঙ্কা নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে এই মজার চিঠিটি শেয়ার করেছেন।

নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে সক্রিয় থাকেন শিল্পপতি হর্ষ গোয়েঙ্কা। এদিন তিনি এই টুইটটি করতেই তা নজর কেড়েছে নেটিজেনদের। চিঠিতে স্ত্রী লিখেছেন, যাতে তার স্বামীকে দ্রুত অফিসে কাজের জন্য ডেকে পাঠানো হয়। চিঠির ওই স্ক্রিনশট শেয়ার করে হর্ষ গোয়েঙ্কা ক্যাপশনে লিখেছেন, 'এর কী উত্তর দেব, আমি জানি না।'

বেশ কয়েকজন নেটিজেন এই টুইট শেয়ার করেছেন। চিঠিতে ঐ নারী সাফ জানিয়েছেন, যদি ওয়ার্ক ফরম হোম এভাবেই চলতে থাকে, তবে আর কিছুদিনের মধ্যেই সংসার ভেঙে যাবে। কারণ অফিসের কাজে বসা স্বামীর দিনে ১০ বার কফি চাই, সারা দিন এ ঘর থেকে ও ঘরে গিয়ে ঘর নোংরা করে। এমনকি তিনি কাজ করতে করতে ঘুমিয়েও পড়েন বলে জানা গিয়েছে।

পাশাপাশি, চিঠিতে ওই নারী লিখেছেন তার স্বামী ভ্যাকসিনের ডবল ডোজই নিয়ে নিয়েছেন। অফিসে কাজ করার সময় সমস্ত কোভিড প্রোটোকল মানতেও তিনি তৈরি। তার দাবি, যদি এভাবে চলে তবে এই সংসার টিকবে না। তার দুই সন্তান রয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

হর্ষ গোয়েঙ্কার এই মজার টুইট সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ভাইরাল। অনেকেই এটি শেয়ার করেছেন। কেউ আবার কমেন্টে নানা মজার উত্তর দিয়েছেন। একজন লিখেছেন, 'এটা এখন বেশিরভাগ বাড়ির সমস্যা, ব্যাপারটাকে কোনও ভাবেই মজার ছলে নেওয়া উচিত না'। 

অন্যদিকে, এক নেটিজেন লিখেছেন, এই নারীর রাজনীতিতে যোগ দেওয়া উচিত। শিক্ষামন্ত্রী বা নারী ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী করা উচিত এই নারীকে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের মার্চ থেকেই শুরু হয়েছে,ওয়ার্ক ফরম হোম কালচার। এখন বেশ কিছু সংস্থা ফের অফিসে কাজ শুরু করলেও বহু কোম্পানি ওয়ার্ক ফরম হোমই চালিয়ে যাচ্ছে। অনেকের অভিযোগ, এতে তাদের সমস্যা বেড়েছে। বিশেষ করে নারীরা বলছেন সারাদিন স্বামী বাড়ি থাকায় একদিকে যেমন সুবিধা হচ্ছে, তেমনি অসুবিধাও হচ্ছে।