ইংল্যান্ড-ইরান ম্যাচ যে কারণে ১১৭ মিনিটের


আগামী নিউজ | ক্রীড়া ডেস্ক প্রকাশিত: নভেম্বর ২২, ২০২২, ১১:৫১ এএম
ইংল্যান্ড-ইরান ম্যাচ যে কারণে ১১৭ মিনিটের

ঢাকাঃ অতিরিক্ত সময় বাদ দিলে ফুটবল ম্যাচের জন্য নির্ধারিত সময় ৯০ মিনিট। ইনজুরি এবং খেলোয়াড় পরিবর্তনের কারণে যে সময়টা দেওয়া হয় দুই অর্ধ মিলিয়ে, সেটাও বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দশ মিনিটের বেশি হয় না। তাই যেকোনো টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বের খেলাগুলো ১০০ মিনিটের বেশি গড়াতে দেখা যায় না খুব একটা। কিন্তু এবারের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড-ইরানের ম্যাচটা যেন সেসব পরিসংখ্যানকে পাত্তাই দেয়নি। 

সোমবার রাতে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল ইংল্যান্ড-ইরান। আল খলিফা স্টেডিয়ামের ম্যাচে ইরানকে ৬-২ গোলে হারিয়েছে ইংলিশরা। ম্যাচের ফলাফল অনেকটা অনুমিতই ছিল কিন্তু সময়ের পরিধিটা অবাক করেছে সবাইকে। এক পর্যায়ে অনেকটা অধৈর্যও হয়ে গিয়েছিলেন মাঠে উপস্থিত থাকা অনেক দর্শক। কারণ ৯০ মিনিটের ম্যাচটা যে গড়িয়েছে পাক্কা ১১৭ মিনিট, অর্থাৎ নির্ধারিত সময়ের চেয়েও ২৭ মিনিট বেশি। 

ম্যাচের অষ্টম মিনিটের মাথায় গোলমুখে একটা ক্রস ঠেকাতে গিয়ে ডিফেন্ডার হোসাইনির সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে মাথায় আঘাত পান ইরানের গোলরক্ষক আলী রেজা। গুরুতর ছিল সে আঘাত, মাঠেই অনেকটা সময় চিকিৎসা চললেও শেষ পর্যন্ত খেলা চালিয়ে যেতে পারেননি রেজা। বদলি হিসেবে পরে মাঠে নামেন হোসেইন হোসেইনি। এর মধ্যে নষ্ট হয় প্রায় ১৫ মিনিটের মতো। তাই প্রথমার্ধ শেষে যুক্ত হয় অতিরিক্ত ১৪ মিনিট। বিশ্বকাপের ইতিহাসে দীর্ঘতম প্রথমার্ধের রেকর্ড এটি।

দ্বিতীয়ার্ধেও বড় বিরতি এসেছে খেলায়। ৭০তম মিনিটে চোট পান ইংলিশ ডিফেন্ডার হ্যারি ম্যাগুয়ের। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকার শুশ্রূষার জন্যও মাঠের খেলা বন্ধ ছিল বেশ কিছুক্ষণ। এছাড়া নিয়মিত পানিপানের বিরতির কারণেও এ অর্ধে অতিরিক্ত সময় লেগেছে। তাই রেফারিকে ১৩ মিনিটের অতিরিক্ত সময় দিতে হয়েছে এ অর্ধেও। সবমিলিয়ে গ্রুপ পর্বের ম্যাচ হিসেবে এটিই এখন বিশ্বকাপের দীর্ঘতম ম্যাচ।

বুইউ