ঘানাকে উড়িয়ে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু


আগামী নিউজ | ক্রীড়া ডেস্ক প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২, ০৯:৫৯ এএম
ঘানাকে উড়িয়ে ব্রাজিলের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি শুরু

ঢাকাঃ দুই মাসেরও কম সময় বাকি। এরপর শুরু হয়ে যাবে কাতার বিশ্বকাপ। বিশ্ব ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের আসরকে সামনে রেখে তাই ফিফা উইন্ডোতে নিজেদের ঝালিয়ে নিচ্ছে দলগুলো। শুক্রবার বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে আফ্রিকার দেশ ঘানা মুখোমুখি হয় ব্রাজিল। তাতে প্রতিপক্ষকে কোনো প্রকার পাত্তাই দেননি নেইমার-মার্কুইনোসরা।

রাতে ফ্রান্সের স্তাদে ওসেয়ানে ঘানাকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। দলের হয়ে জোড়া গোল করেছেন রিচার্লিসন আর অন্য গোলটি আসে মার্কুইনোসের পা থেকে। দুটি গোলে অবদান রেখে ম্যাচে আলো ছড়িয়েছেন নেইমার।

ঘানার বিপক্ষে ব্রাজিল সবশেষ খেলেছে সেই ২০১১ সালে। ১১ বছর আগের সেই ম্যাচে ব্রাজিল জিতেছিল ১-০ গোলে। আর সামগ্রিক হিসেবেও ব্রাজিলকে কখনো হারাতে পারেনি ঘানা, পারেনি নিদেনপক্ষে একটা ড্র আদায় করে নিতেও। সোনালি যুগের ঘানা যেটা পারেনি, সেটা যে বর্তমান ঘানাও পারবে না, সেটা একরকম অনুমিতই ছিল। মাঠের খেলায় পাওয়া গেল তারই প্রমাণ।

পঞ্চম মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় ব্রাজিল। ডান দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে লুকাস পাকেতার পাসে উড়িয়ে মারেন রিচার্লিসন। এক মিনিট পর ভিনিসিয়াস জুনিয়রের পাস বক্সের ভেতর পেয়েও শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি পাকেতা।

তবে গোলের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি সেলেসাওদের। ম্যাচের নবম মিনিটে রাফিনহার কর্নারে অনেকটা লাফিয়ে উঠে হেডে দলকে এগিয়ে নেন পিএসজির ডিফেন্ডার মার্কুইনহোস।

পঞ্চম মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় ব্রাজিল। ডান দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে লুকাস পাকেতার পাসে উড়িয়ে মারেন রিচার্লিসন। এক মিনিট পর ভিনিসিয়াস জুনিয়রের পাস বক্সের ভেতর পেয়েও শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি পাকেতা।

তবে গোলের জন্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি সেলেসাওদের। ম্যাচের নবম মিনিটে রাফিনহার কর্নারে অনেকটা লাফিয়ে উঠে হেডে দলকে এগিয়ে নেন পিএসজির ডিফেন্ডার মার্কুইনহোস।

প্রথমার্ধে ১২ মিনিটের ব্যবধানে আরও দুই গোল করেন রিচার্লিসন। দুটি গোলেই অবদান নেইমারের। ২৮ মিনিটে নেইমারের পাস ডি-বক্সে পেয়ে প্রথম স্পর্শে ডান পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন টটেনহ্যাম হটস্পারের ফরোয়ার্ড।

৪০ মিনিটে বাঁদিক থেকে মাপা ফ্রি-কিক নেন নেইমার। চতুর হেডে দলকে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন ২৫ বছর বয়সী রিচার্লিসন।

জয় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কয়েকটি বদলি আনেন ব্রাজিল কোচ তিতে। ৭৫ মিনিটে লুকাস পাকোয়েতার ক্রস থেকে প্রায় গোল পেয়েই যাচ্ছিলেন অ্যান্টোনি।

নেইমারেরও সুযোগ ছিল গোল উৎসবে নাম লেখানোর। ৮০তম মিনিটে তিন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দারুণ এক শট নেন পিএসজি তারকা। একটুর জন্য সেটা জালে জড়ায়নি।

ব্রাজিলের পরের ম্যাচ মঙ্গলবার। প্যারিসে আফ্রিকার আরেক দেশ তিউনিসিয়ার বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলতে নামবে তিতের দল।

এমবুইউ