Agaminews
Dr. Neem Hakim
Dr. Neem Hakim

নবান্নের হাট


আগামী নিউজ | নাহিদ আল মালেক, জেলা প্রতিনিধি প্রকাশিত: নভেম্বর ১৭, ২০২০, ০৪:১১ পিএম
নবান্নের হাট

ছবিঃ আগামী নিউজ

বগুড়াঃ নতুন ধান কাটা উপলক্ষ্যে বাঙালি অন্যতম উৎসব ‘নবান্ন’।

হেমন্তের দ্বিতীয় মাস অগ্রহায়নের প্রথম দিন নবান্ন হলেও সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পঞ্জিকা মতে আজ মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) পালিত হচ্ছে নবান্ন উৎসব।

এ উপলক্ষ্যে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার উথলী হাটে বসেছে নবান্নের মেলা। যার মূল আকর্ষণ ‘বড় মাছ’।

হাটে গিয়ে দেখা গেছে, শত শত ক্রেতা বিক্রেতার পদভারে সকাল থেকেই মুখরিত হাট প্রাঙ্গন। রুই, কাতল, চিতল,পাঙ্গাসসহ নানা জাতের মাছের আমদানী হয়েছে নবান্নের হাটে। এ উপলক্ষ্যে আশে পাশের ২০টি গ্রামের মানুষেরা নতুন জামাই সহ আত্মীয়স্বজনদের দাওয়াত দিয়েছেন। তারা মেলায় এসেছেন বড় মাছ ও মিষ্টি কিনতে। করোনা ভাইরাসের কারণে সীমিত আকারে হলেও হাটটি মেলায় পরিণত হয়েছে।

এছাড়া হাটে উঠেছে নতুন শীতকালীন সবজি। এবার সবজির দামও চড়া। নতুন আলু  প্রতি কেজি ৩২০ টাকা, মিষ্টি আলু  ৩০০ টাকা, কেসর ২০০ টাকা কেজি, বরবটি ৬০ টাকা, বাঁধা কপি ৭০ টাকা ফুল কপি ৮০ সিম ৮০  থেকে ২০০ কেজি পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।
এছাড়া মাছের মধ্যে কাতল ৬৫০টাকা কেজি রুই ৪৫০টাকা কেজি, বিগ্রেড ৩০০টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, নবান্নের এই হাটের মূল আকর্ষণ বড় মাছ। এবার ১০ থেকে ১৫কেজি ওজনের মাছ উঠেছে। প্রতিবছর সনাতন পঞ্জিকা মতে অগ্রহায়নের প্রথম দিনে নবান্নের এই হাট বসে। তবে কবে থেকে এই নবান্নের হাট বসে তা কেউ বলতে পারে না। 
মাছ বিক্রেতা আব্দুল বাছেদ, খয়বর হোসেন জানান, প্রতি বছর নবান্নের হাটে একদিনেই প্রায় এক থেকে দেড়কোটি টাকার মাছ বিক্রি হয়।

মাছ ছাড়াও হাটে নানা ধরনের মিষ্টান্ন, মুড়ি মুড়কি এবং শিশুতোষ খেলনারও দোকান বসে।

আগামীনিউজ/মিথুন