Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

কক্সবাজার সৈকতের খুব কাছে ডলফিনের আনাগোনা


আগামী নিউজ | ডেস্ক রিপোর্ট প্রকাশিত: নভেম্বর ১৪, ২০২১, ০১:০৪ পিএম
কক্সবাজার সৈকতের খুব কাছে ডলফিনের আনাগোনা

ছবিঃ সংগৃহীত

দেশে শীতের শুরুতে কক্সবাজার সমুদ্রে ডলফিন দলবেঁধে খেলায় মেতেছে। সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্ট থেকে কলাতলী পয়েন্টের মাঝামাঝি অদূর সমুদ্রে কয়েকটি ডলফিনকে খেলা করতে দেখা গেছে। 

করোনাভাইরাস সংক্রমণে লকডাউন সময়ের যখন সমুদ্রসৈকতে লোক সমাগম বন্ধ ছিলো,  তখন ডলফিনের নাচ দেখা গিয়েছিল। কিন্তু এবার শীতের শুরুতে অদূর সমুদ্রে দল বেঁধে দাপাদাপি করছে ডলফিনগুলো। 

শুক্রবার (১২ নভেম্বর) ও শনিবার (১৩ নভেম্বর) ভোরে সৈকতের লাবণী পয়েন্ট ও কলাতলী পয়েন্টের অদূর সমুদ্রে ডলফিনের নাচ দেখেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। তারা জানান, ভোরের কুয়াশা ছেদ করে যখন সূর্য রশ্মি সাগরের নীল জলে পড়ে, তখন লোকজনের আনাগোনা কম থাকায় ডলফিনগুলো তীরের কাছে এসে আপন মনে খেলা করেছে। কখনও দু’-একটা, আবার কখনও দলবেঁধে সাগরজলে খেলায় মেতে ওঠে এই স্তন্যপায়ী প্রাণিগুলো।

লাইফগার্ড কর্মীরা বলছেন, শীত মৌসুমে মাছ চলে আসে সাগরের কিনারায়। তাই ডলফিনও মাছ শিকারে আসে সমুদ্রপাড়ের কাছাকাছি।

সৈকতের লাইফগার্ড সুপারভাইজার সাইফুল্লাহ সিফাত সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, গত বছর লকডাউনে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের কলাতলী পয়েন্টের কাছে কিছু ডলফিন খেলা করতে দেখা গিয়েছিল। পরে বেশ কয়েকটি ডলফিন মৃত ভেসে আসে। এর অনেক দিন পর ডলফিন দেখা গেল।

সমিতিপাড়ার জমির হোছাইন মাঝি বলেন, ‘যখন মাছ শিকারে গভীর সমুদ্রে যাই, তখন সেখানে ডলফিন দেখি। শীতের শুরুতে সাগরের ছোট ও মাঝারি ধরনের মাছগুলো সাগরের কিনারায় চলে আসে, সেই মাছগুলো শিকার করতে মূলত ডলফিন গভীর সমুদ্র থেকে কূলের খুব কাছে চলে আসে।’

কক্সবাজার বন ও পরিবেশ সংরক্ষণ পরিষদের সভাপতি দীপক শর্মা দীপু জানান, ডলফিন মূলত পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পানিতে বিচরণ করে। ফলে স্বচ্ছ পানিতে এসব স্তন্যপায়ী প্রাণী গুলো খেলায় মেতে ওঠে।

আগামীনিউজ/নাসির