Dr. Neem on Daraz
Dr. Neem Hakim

আমলাতন্ত্রের হাতে আমরা জিম্মি হয়ে গেছি: এমপি নাজিম উদ্দিন


আগামী নিউজ | আগামী নিউজ ডেস্ক প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৭, ২০২২, ০৩:৪৬ পিএম
আমলাতন্ত্রের হাতে আমরা জিম্মি হয়ে গেছি: এমপি নাজিম উদ্দিন

ছবিঃ সংগৃহীত

ঢাকাঃ সরকারি দফতরের পিয়নরাও সংসদ সদস্যদের ‘দাম দেয় না’ বলে অভিযোগ তুলে আমলাতন্ত্রের বিরুদ্ধে স্বোচ্চার হওয়ার জন্য সকল এমপিদের আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদ। ময়মনসিংহ-৩ আসনের এই এমপি বলেন, ‘আমলাদের কাছে একটা এমপির মূল্য নেই। জাতীয় সংসদের একজন সদস্য হিসেবে কোনও সচিবের কাছে গেলে মূল্যায়ন নেই। তাদের শ্রদ্ধাবোধ নেই, পিয়ন পর্যন্ত আজকে আমাদের (এমপি) দাম দেয় না। আমরা আমলাতন্ত্রের হাতে জিম্মি হয়ে গেছি। এ থেকে বাঁচার জন্য সবাইকে সোচ্চার হতে হবে।’

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) একাদশ জাতীয় সংসদের ষোড়শ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

প্রবীণ রাজনীতিক আরও বলেন, সত্য কথা বলতে আমরা যদি সংসদে কথা বলি তাহলে বিষয়টি বিরোধীদলের ফ্লোরের মতো হয়ে যায়। আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় কিন্তু আমরা ভুগছি। আমলারা যেভাবে কথা বলেন! একটা এমপির মূল্য নেই আমলাদের কাছে। জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে একজন সচিবের কাছে গেলে কোনো মূল্যায়ন নেই। তারা যে আমাদের শ্রদ্ধা করবেন- সেই শ্রদ্ধাবোধ নেই। পিয়ন পর্যন্ত আজকে আমাদের দাম দেয় না।

সংসদে এদিন তিনি বিভিন্ন ধরনের অপপ্রচার হয় দাবি করে বহুল ব্যবহৃত ভিডিও দেখার মাধ্যম ইউটিউব বন্ধের দাবি জানান।

তার নির্বাচনি এলাকায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজের প্রকল্প গ্রহণ করা হলেও তাতে গতি নেই অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘এলাকার স্কুল-কলেজ ও রাস্তাঘাটের উন্নয়ন কাজ স্থবির হয়ে গেছে। উপজেলা পরিষদ নির্মাণ কাজের ডিজাইন দেওয়া হলেও সেই কাজ হয়নি। সব কাজ একের পর এক বন্ধের পথে। ঠিকাদারদের জিজ্ঞাসা করলে তারা বলেন— টাকা পাইনি, কাজ কোত্থেকে করবো। এমপির কোটায় বরাদ্দ হওয়া ২০ কোটি টাকার কাজও করা হয় না। এরকম হলে নির্বাচনের সময় মানুষের কাছে জবাব দিতে পারবো না। নির্বাচনের আগে সামনে দুই বছর সময় আছে। এই সময়ের মধ্যে কাজগুলো শেষ করাতে না পারলে নির্বাচনের সময় জনগণের সঙ্গে কথা বলতে পারবো না।’

এলাকায় একটি মডেল মসজিদ নির্মাণের প্রসঙ্গ টেনে ময়মনসিংহের গৌরীপুর থেকে নির্বাচিত এই এমপি বলেন, ‘মডেল সমজিদ নির্মাণের জন্য তিন বছর আগে জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে। হাইকোর্ট, সুপ্রিম কোর্ট করার পরও এর নির্মাণ কাজ হচ্ছে না আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে। এখানে পিডি এক কথা বলেন, ডিসি আরেক কথা বলেন। ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে আরেক কথা বলেন। জমিসহ সমস্ত ব্যবস্থা থকলেও কেন যে কাজ শুরু… এই প্রকল্পের পিডি সাহেবের মনে হয় স্বচ্ছতার অভাব রয়েছে। তার ভেতরে একটা দুর্বলতা রয়েছে।’

জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, প্রবীণ এই রাজনীতিক আরও বলেন, ‘সত্য কথা বলতে আমরা যদি সংসদে কথা বলি তাহলে বিষয়টি বিরোধী দলের ফ্লোরের মতো হয়ে যায়। আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় কিন্তু আমরা ভুগছি। আমলারা যেভাবে কথা বলেন! একটা এমপির মূল্য নেই আমলাদের কাছে। জাতীয় সংসদ সদস্য হিসেবে একজন সচিবের কাছে গেলে কোনও মূল্যায়ন নেই। তারা যে আমাদের শ্রদ্ধা করবেন- সেই শ্রদ্ধাবোধ পর্যন্ত নেই, পিয়ন পর্যন্ত আজকে আমাদের দাম দেয় না।’

সংসদ সদস্যদের উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘আপনারা এমপি হয়ে আসছেন, দেখেন আপনারা পার্লামেন্টে.. আপনাদের কী রকম করে, শুধু স্যারটাই বলে। এই স্যারটা (শব্দটা) শুধু না বলে পারে না। আমরা আমলাতন্ত্রের হাতে জিম্মি হয়ে গেছি। আমলাতন্ত্রের হাত থেকে বাঁচার জন্য আমাদের সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। সংসদ সদস্যদের বলবো দয়া করে আমলাতন্ত্র থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য আপনারা শক্ত হোন। শক্ত না হলে তারা আমাদের গুরুত্ব দেবে না।

আগামীনিউজ/বুরহান