Agaminews
Dr. Neem Hakim

ফলের গাড়িতে মাদক, আটক ৪


আগামী নিউজ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: মে ২২, ২০২০, ০৫:১৪ পিএম
ফলের গাড়িতে মাদক, আটক ৪

ঢাকা: রাজধানীতে জরুরি প্রাণি খাদ্য উৎপাদন কাজে নিয়োজিত স্টিকার লাগিয়ে অস্ত্র ও মাদক পাচারের সময় চারজনকে আটক করেছে র‌্যাব। আটককৃতরা কার্যকালাপ চালিয়ে যাওয়ার জন্য মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে অস্ত্র বিক্রি করতো বলে র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছে ।

রাজধানীর আদাবর থানার রিং রোডের হক সাহেবের মোড়ে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে চেকপোস্ট বসিয়ে তাদের আটক করা হয়।

এ সময় তাদের থেকে ২টি দেশি বন্দুক, ৬ রাউন্ড গুলি ও প্রত্যেকের কাছ থেকে ৭ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এছাড়া মাদক পরিবহণে ব্যবহৃত গাড়িটি আটক করা হয়। এরা হলো- মো. ওসমান, শাহজাহান সরকার, সেলিম সরকার ও নুর ইসলাম।

শুক্রবার র‌্যাব-২ এর ক্রাইম প্রিভেনশন স্পেশালাইজড কোম্পানির কমান্ডার পুলিশ সুপার মুহম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী আগামী নিউজকে বলেন, গতরাতে গোপন সংবাদে জানতে পারি কক্সবাজার থেকে কাঁচামাল পরিবহণের আড়ালে মাদক ও অস্ত্রের চালান পাচারের উদ্দেশ্যে অস্ত্রধারী মাদক ব্যবসায়ী আসছে।

পরে ওই এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে সন্দেহভাজন গাড়ি ও তার যাত্রীদের তল্লাশি করে কাঁঠাল ও ডাব ভর্তি ১টি পিকআপে থাকা ৪ জন ব্যক্তির দেহ তল্লাশি করলে ২জনের পিঠে থাকা ব্যাক প্যাক ব্যাগে ২টি দেশি বন্দুক, ৬ রাউন্ড গুলি ও চারজনের প্রত্যেকের কাছ থেকে ৭ হাজার ইয়াবা উদ্ধার ও পরিবহণে ব্যবহৃত গাড়ি আটক করা হয়।

মাদক পাচারের কৌশল হিসেবে র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, আসামিরা তাদের গডফাদারদের অর্থ ও পরিবহণ সহযোগিতা নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে কক্সবাজার এলাকা থেকে পিকআপটিতে সাদা কাগজে ‘জরুরি প্রাণী খাদ্য উৎপাদন কাজে নিয়োজিত’ স্টিকার সাঁটিয়ে এসব চালান বহন করে ঢাকা ও গাজীপুরে সরবরাহ করে থাকে।

অস্ত্র পাচার সংক্রান্তে আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে তিনি জানান, মাদক ব্যবসা নির্বিঘ্ন করার জন্য তার চাহিদামত কক্সবাজার থেকে অস্ত্রের চালান নিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে চড়া দামে বিক্রি করতো।

আসামিরা আরো জানায়, কক্সবাজার থেকে রওনার সময় তাদের সামনে প্রাইভেটকার যোগে একটি এক্সপার্ট পার্টি থাকে। রাস্তায় চেকপোস্ট থাকলে বা গাড়ি তল্লাশে হলে এক্সপার্ট পার্টি সামনে থেকে সতর্ক করে দেয়।  

তাদের বিরুদ্ধে রাজধানীর আদাবর থানায় অস্ত্র আইন ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পৃথক ২টি মামলা করা হয়েছে।

আগামী নিউজ/ আরিফ/ তাওসিফ

Dr. Neem