Agaminews
Dr. Neem

করোনা সংক্রমন: তথ্য গোপন করলে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা 


আগামী নিউজ | নিজস্ব প্রতিবেদক   প্রকাশিত: মার্চ ২৬, ২০২০, ১২:৫২ পিএম
করোনা সংক্রমন: তথ্য গোপন করলে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা 

ঢাকা: করোনা ভাইরাস (কোভিট-১৯) মোকাবিলায় কোয়ারেন্টাইন থাকতে পরামর্শ মানা হচ্ছে না। তাই তাদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে কোয়ারেন্টাইনে থাকা নিশ্চিত করতে নিদেশ দিয়েছে সরকার। এটি নিশ্বাচত করতে কাজ করছে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা। অনেক ক্ষেত্রে বাড়ি  বাড়ি যাচ্ছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা। একই সঙ্গে সচেতনতা সৃষ্টি করার লক্ষ্যে লিফলেট বিলি করছেন। তারপরও কেউ সরকারের এই নির্দেশ না মানলে রয়েছে শাস্তির বিধান। 

আইনজীবী রহমান জাহীদ আগামীনিউজকে জানান,  দেশে প্রচলিত সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮। ২০১৮ সনের ৬১ নং আইন। এই আইনের ২৪ ধারায় বলা হয়েছে, যদি  আক্রান্ত কোনো ব্যক্তি সংক্রামকের তথ্য গোপন করে। সংক্রামক ছড়ায় যার ফলে অন্য কেউ আক্রান্ত হয় তাহলে সে দোষী সাব্যস্ত হবে। তাকে ছয়মাসে কারাদণ্ড অথবা ১ লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

আরো বলা আছে, এই আইনের ক্ষমতাপ্রাপ্ত ব্যাক্তিকে দায়িত্ব পালনের সময় কেউ যদি বাধা প্রদান করে এবং দায়িত্ব পালনকারী ব্যাক্তির আদেশ অমান্য করে তাহলে সেই ব্যক্তিকে ৩ মাসের কারাদণ্ড অথবা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।
২৬ ধারায় বলা আছে কেউ যদি এই সংক্রামক নিয়ে মিথ্যা বা ভুল তথ্য প্রদান করে তাহলে অনুর্ধ দুই মাস কারাদণ্ড বা ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

এই আইনের এ ধারাগুলো আমল অযোগ্য। মিমাংসা যোগ্য ও জামিন যোগ্য।

ইতোমধ্যে বিদেশ ফেরত ব্যাক্তিদের বিশেষ করে যারা কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন না বা কোয়ারেন্টাইন মানছেন না তাদের বাধ্য করতেও কাজ করছে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানা, হোম  কোয়ারেন্টাইনে থাকার জন্য সরকার সাধারণ ছুটি দিয়েছে । বিদেশফেরতদের বাড়িতে গিয়ে তা মানার জন্য উৎসাহিত করা হচ্ছে ও নিশ্চিতকরণে আনসার ও ভিডিপি কাজ করছে। এছাড়া করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে গ্রামাঞ্চলসহ লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করা হচ্ছে। এছাড়া আনসার সদস্যরা মাস্ক বিতরণেও খবর পাওয়া গেছে। 

আগামী নিউজ/তরিকুল/নাঈম

Dr. Neem