আজ ‘আনফ্রেন্ড’ করার দিন


আগামী নিউজ | আগামী ডেস্ক প্রকাশিত: নভেম্বর ১৭, ২০২২, ১২:৩৫ পিএম
আজ ‘আনফ্রেন্ড’ করার দিন

ঢাকাঃ বর্তমানে জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। সকালে ঘুম থেকে উঠেই নীল-সাদা জগতে ঢুঁ না মারলে যেন আমাদের দিন শুরু হয় না। কখন কী করছি, কী খাচ্ছি কিংবা মনের অনুভূতি জানাই বন্ধুদের। আবার বন্ধুরাও কে কী লিখল বা ছবি দিল তা দেখে প্রতিক্রিয়া জানাই। 

বন্ধুতালিকায় সাধারণত পরিচিত মানুষরাই যুক্ত থাকেন। তবে কখনো কখনো কাজের সূত্রে কিংবা বন্ধুদের পরিচিতর সূত্র ধরে অনেকে বন্ধু হন। অনেকসময় বন্ধুতালিকায় থাকা মানুষগুলো কেউ কেউ হয়ে ওঠে বিরক্তিকর। তাদের কার্যক্রম অশান্তি নিয়ে আসে জীবনে। এমন পরিস্থিতি সেসব ব্যক্তিদের আমরা আনফ্রেন্ড করে থাকি।

unfriend

আপনি কি বন্ধুতালিকার কারো ওপর বিরক্ত। তাকে আনফ্রেন্ড করার কথা ভাবছেন? তবে আজকের দিনটি আপনার জন্য উৎকৃষ্ট। কারণ আজ (১৭ নভেম্বর) আনফ্রেন্ড দিবস।

বন্ধু শব্দটির সঙ্গে আমি পরিচিত বেশ আগে থেকে। তবে ‘আনফ্রেন্ড’ শব্দটির সঙ্গে আমাদের পরিচয় হয়েছে এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সূত্রে। 

unfried

জানলে অবাক হবেন, ২০০৯ সালে অক্সফোর্ড ডিকশনারির সেরা শব্দ ছিল ‘আনফ্রেন্ড’। যার সংজ্ঞা হলো- ফেসবুকের মতো সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইটে কাউকে ‘বন্ধু’ তালিকা থেকে বাদ দেওয়া।

আনফ্রেন্ড দিবস আছে তা তো জানা গেল। কিন্তু কীভাবে এলো এই দিবস? জানা যায়, ২০১৪ সালে কৌতুক অভিনেতা জিমি কিমেল ‘আনফ্রেন্ড ডে’ প্রতিষ্ঠা করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে অপরিচিত ও বিরক্তিকর ব্যক্তিকে বন্ধু তালিকা থেকে বাদ দেওয়া ছিল দিনটি প্রচলনের উদ্দেশ্য। 

unfriend

অনেক ব্যক্তি আছে যারা অহেতুক অপ্রয়োজনীয় ম্যাসেজ পাঠিয়ে বিরক্ত করেন। বাজে কমেন্ট করেন। চাইলে এমন ব্যক্তিদের আজকে আনফ্রেন্ড করতে পারেন। বাজে, অপ্রয়োজনীয় ব্যক্তিদের বন্ধুতালিকা থেকে বাদ দেওয়ার মাধ্যমে উদযাপন করুন আজকের দিনটি।

এসএস