Agaminews
Dr. Neem Hakim

গাজরের উপকারিতা: গাজরের পায়েস


আগামী নিউজ | নিউজ ডেস্ক প্রকাশিত: মে ১৬, ২০২০, ১০:১৪ এএম
গাজরের উপকারিতা: গাজরের পায়েস

ছবি: সংগৃহীত

গাজরের স্বাস্থ্য ও পুষ্টিগত উপকারিতা ব্যাপক। এটি খেতেও দারুণ সুস্বাদু। গাজরের রয়েছে নানান গুণাগুণ। শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে  এর জুড়ি নেই। প্রতিদিন গাজর খাওয়ার অভ্যাস করা স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো। গাজরকে পায়েস বানিয়েও খাওয়া যায়।

গাজরে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ডি, ই, কে, বি১ এবং ভিটামিন বি৬। এছাড়াও এতে রয়েছে প্রচুর বায়োটিন, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, অর্গানিক সোডিয়াম এবং অন্যান্য খনিজ উপাদান।
গাজরের পুষ্টিগুণ : গাজরের অত্যাবশ্যকীয় ক্ষারীয় উপাদান রক্তের অম্লতা ও সুগারের সামঞ্জস্য বিধান করে। এছাড়া রক্তে বিষক্রিয়ার ফলে সৃষ্ট হয় মুখব্রণ। গাজরের বিভিন্ন ফল উৎপাদক পুষ্টি উপাদান মুখব্রণ প্রতিরোধে সহায়তা করে।
গাজরের জুস নিয়মিত পান করলে হৃদরোগ ও স্ট্রোক প্রতিরোধ করে। প্রতিদিন খাবারের সঙ্গে একটি করে গাজর খেলে ক্যান্সারের ঝুঁকি দূর করে। গাজরের সার বস্তু রক্তের পানির ভাগ এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা কম রাখে। গাজারে থাকা অ্যান্টিঅক্সিজেন্ট বিভিন্ন রোগ সংক্রামক থেকে শ্বাস-প্রশ্বাস পদ্ধতিকে নিরাপদে রাখে। সূত্র: এনডিটিভি।

যেভাবে তৈরি করবেন গাজরের পায়েস 

উপকরণ : গাজর কুচি ১ কাপ, চিনিগুঁড়া চাল হাফ কাপ, দুধ ২ লিটার, ঘি ১ টেবিল চামচ, মাওয়া হাফ কাপ, এলাচ ও দারুচিনি ৪টি, চিনি পরিমাণমতো।

পদ্ধতি : গাজর কুচি করে ঘি দিয়ে ভেজে নিতে হবে। দুধে চাল দিয়ে ফুটাতে হবে। চাল ফুটে এলে চিনি ও গাজর দিতে হবে। ভালো করে ফুটে এলে মাওয়া দিতে হবে। ঘন হয়ে এলে নামাতে হবে।
সতর্কতা : যাদের রক্তে সুগার কম তারা দিনে সর্বোচ্চ ২ থেকে ৩টি করে গাজর খেতে পারেন। আর ডায়াবেটিস রোগীরা দিনে অর্ধেক পরিমাণ গাজর খেতে পারেন।

আগামীনিউজ/বিজয়

Dr. Neem