Dr. Neem on Daraz
Dr. Neem Hakim

এসএসসি-সমমানের পুনর্নিরীক্ষার ফল ২১ জানুয়ারি


আগামী নিউজ | নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৪, ২০২২, ১০:৩০ এএম
এসএসসি-সমমানের পুনর্নিরীক্ষার ফল ২১ জানুয়ারি

ঢাকাঃ প্রতিবারের মতো এবারও এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলে সন্তুষ্ট না হওয়া শিক্ষার্থীরা পুনর্নিরীক্ষার আবেদন করেছে। সেই আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে আগামী ২১ জানুয়ারি।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি)  আন্তঃশিক্ষা বোর্ড কমিটির সমন্বয়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটি সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। আগামী ২১ জানুয়ারি এসএসসি ও সমমানের পুনর্নিরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে।

জানা যায়, ৩০ ডিসেম্বর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়। পর দিন (৩১ ডিসেম্বর) থেকে পুনর্নিরীক্ষার আবেদন শুরু হয়। যা শেষ হয় গত ৬ জানুয়ারি।

গত ৩০ ডিসেম্বর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ড মিলে এবার পাসের হার ৯৩.৫৮, যা দেশে এ যাবৎকালে সর্বোচ্চ।

গত বছর থেকে এবার সার্বিক পাসের হার বেড়েছে ১০.৭১ শতাংশ। ২০২০ শিক্ষাবর্ষে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাসের হার ছিল ৮২.৮৭ শতাংশ।

সাধারণ নয়টি শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৯৪.০৮ শতাংশ। মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৭ লাখ ৯২ হাজার ৩১২ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৬২ হাজার ৬২৫ জন।

মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডে এবার পাসের হার ৯৩.২২ শতাংশ। মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২ লাখ ৯২ হাজার ৫৬৯ জন। জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী ১৪ হাজার ৩১৩ জন।

আর কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৫১৪ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাসের হার ৮৮.৪৯ শতাংশ। জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী ৫ হাজার ১৮৭ জন।

এবারও শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রেখেছে মেয়েরা। মোট ছেলে পরীক্ষার্থী ছিল ১১ লাখ ৪২ হাজার ৯৪ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১০ লাখ ৫৮ হাজার ৬২৮ জন। আর মেয়ে পরীক্ষার্থী ছিল ১০ লাখ ৯৮ হাজার ৩০১ জন। উত্তীর্ণ হয়েছে ১০ লাখ ৩৭ হাজার ৯১৮ জন।

গত বছর ছাত্রদের পাসের হার ৮১ দশমিক ১৩ শতাংশ, আর ছাত্রীদের পাসের হার ছিল ৮৩ দশমিক ২৮ শতাংশ।

এবার জিপিএ ফাইভ পাওয়াদের মধ্যেও এগিয়ে মেয়েরা। জিপিএ ফাইভ পেয়েছে মোট ১ লাখ ৮৩ হাজার ৩৪০ জন। এর মধ্যে ছাত্রী ১ লাখ ৩ হাজার ৫৭৮ জন। ছাত্র ৭৯ হাজার ৭৬২ জন। জিপিএ ফাইভ পাওয়ায় মেয়েদের হার ৯ দশমিক ৪৩ শতাংশ, ছেলেদের হার ৬ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

গত বছর পাঁচে পাঁচ পাওয়া ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ শিক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্রী ছিল ৭০ হাজার ১৪৪ জন। আর ছাত্র ৬৫ হাজার ৭৫৪ জন।

সাধারণত প্রতি বছর ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হলেও এ বছর করোনা মহামারির কারণে পরীক্ষা হয় নভেম্বরে।

আগামীনিউজ/বুরহান