Dr. Neem
Dr. Neem Hakim

বাকৃবিতে ৫০ কোটির উন্নয়নমূলক কাজ সম্পন্ন, চলমান ৫০ কোটির কাজ


আগামী নিউজ | তানিউল করিম জীম, বাকৃবি প্রতিনিধি প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১, ০১:২০ পিএম
বাকৃবিতে ৫০ কোটির উন্নয়নমূলক কাজ সম্পন্ন, চলমান ৫০ কোটির কাজ

ছবিঃ আগামী নিউজ

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ৪ বছর মেয়াদী ‘অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের’ কাজ শুরু হয় ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে।  প্রকল্পের মোট বাজেট ৬৫৯ কোটি ৮০ লক্ষ টাকা। গত ৩০ জুন পর্যন্ত এই  প্রকল্পের আওতায় মোট ব্যয় হয় ৫০ কোটি ৫৮ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন শাখার পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. হারুন-অর-রশিদ।

তিনি আরও  জানান, এ পর্যন্ত ৫০ কোটি ৫৮ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা ব্যয় করা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে। যার মধ্যে হল মেরামতে ১৬ কোটি ৬৮ লক্ষ, হল সম্প্রসারণে (বেগম রোকেয়া হল)  ৯ কোটি ৩ লক্ষ ৪৮ হাজার, হলের নতুন উইং তৈরিতে (সুলতানা রাজিয়া হল) ২ কোটি ৬৯ লক্ষ ৮৯ হাজার,  অভ্যন্তরীণ রাস্তা এবং কালভার্ট তৈরিতে ১ কোটি ৪৫ লক্ষ ৪৭ হাজার, ডিপ টিউবওয়েল স্থাপনে ১ কোটি ৭৭ লক্ষ ৭০ হাজার, পানি সরবরাহ লাইনে ১ কোটি ৪৪ লক্ষ ৮৭ হাজার, হাই টেনশন ইলেকট্রিক লাইনে ১ কোটি ৩৪ লক্ষ ৯৭ হাজার, বিশ^বিদ্যালয়ের সীমানার দেওয়াল তৈরিতে ১ কোটি ২২ লক্ষ ৩৫ হাজার, হলের সীমানা দেওয়াল তৈরিতে ৪ কোটি ৬০ লক্ষ ৭২ হাজার, ৪ টি বাস, ২ টি মাইক্রো বাস, ১ টি পিকআপ এবং ১ অ্যাম্বুলেন্স ক্রয়বাবদ ব্যয় ৩ কোটি ১৪ লক্ষ ৪৬ হাজার,  ট্রান্সফরমার ক্রয়বাবদ খরচ ৭১ লক্ষ ৮৫ হাজার, আবাসিক হলের নতুন আসবাবপত্র তৈরি বাবদ ব্যয় ১ কোটি ৪২ লক্ষ ৬২ হাজার, সেন্ট্রাল ল্যাব যন্ত্র ( যেমন-ডিএনএ সিকুয়েন্সার) ক্রয় বাবদ খরচ ৩ কোটি ৯৩ লক্ষ ৫১ হাজার টাকা।

এছাড়া তিনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে আরও  প্রায় ৫০ কোটি টাকার কাজ চলমান রয়েছে। যার মধ্যে স্টুডিও ভবন (শিক্ষকদের আবাসিক ভবন), ৮ তালা মাল্টি পারপাজ ভবন, উচ্চ গতি সম্পন্ন ইন্টারনেট, ২ তলা বিশিষ্ট ৮ টি ফিল্ড ল্যাব এবং ফার্ম ইকুইপমেন্ট ক্রয় প্রক্রিয়াধীন। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইন্সটিটিউটের (বিনা) পিছনে ১০ তালা করে ১০২ কোটি ব্যয়ে মেয়েদের ২ টি হল নির্মাণ করা হবে। প্রত্যেক হলের ধারণক্ষমতা হবে ১২০০ শিক্ষার্থী। অন্যদিকে শহীদ জামাল হোসেন হলকে ১০ তালা ভবনে রূপান্তর করা হবে। এখানেও ধারণক্ষমতা হবে ১২০০ জন। এছাড়া শিক্ষদের জন্যে ২ টি ১০ তালা ভবন (আবাসিক) , অফিসারদের জন্যে ১ টি এবং কর্মচারিদের জন্যে ১ টি ১০ তালা ভবণ এবং ৬ তালা ভবন বিশিষ্ট টিএসসি নির্মাণ করা হবে।

উল্লেখ্য, এশিয়ান ডেভিলপমেন্ট ব্যাংকের অর্থায়নে আগামী অর্থ বছরে বিশ্ববিদ্যালয়ে  ১৬০০ কোটি টাকার প্রকল্প শুরু হবে। এ বাজেটে একটি বিশ্বমানের ১০ তলা ভবন বিশিষ্ট ল্যাব তৈরি করা হবে যার ব্যয় ধরা হয়েছে ৮০০ কোটি টাকা। এছাড়া এ বাজেট থেকে পুরাতন একাডেমিক ভবন সংস্করণসহ বিভিন্ন উন্নয়ন, শিক্ষার্থীদের বিদেশে ইন্টারশীপের ব্যবস্থা এবং গবেষণামূলক কাজে ব্যয় করা হবে।

ড. মো. হারুন-অর-রশিদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নত অবকাঠামো এবং অত্যাধুনিক ল্যাব সুবিধা বৃদ্ধি করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে গবেষণার মান বৃদ্ধি পাবে এবং নতুন নতুন উন্নত গবেষণা করার ক্ষেত্র তৈরী হবে। এতে করে বাকৃবি বিশ্ব সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের র‌্যাংকিংয়ে আরোও অনেকদূর এগিয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করছি।