Agaminews
Dr. Neem Hakim
Dr. Neem Hakim

বানের পানিতে দিশেহারা পান চাষিরা 


আগামী নিউজ প্রকাশিত: জুলাই ২৭, ২০২০, ১১:২৩ এএম
বানের পানিতে দিশেহারা পান চাষিরা 

ছবি সংগৃহীত

রাজশাহী: টানা বৃষ্টি আর উজান থেকে নেমে আসা ঢলে এরই মধ্যে পদ্মার পানি বিপৎসীমা ছুঁইছুঁই করছে। ইতিমধ্যিই রাজশাহীর মোহনপুর ও বাগমারা উজেলায় থাকা নিচু এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। স্থানীয় পানবরজগুলোতে হাঁটুপানি জমেছে। পানবরজ নিয়ে এরই মধ্যে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন পান চাষিরা। 

দেশের মধ্যে মিষ্টি স্বাদের পানের যোগান দেওয়া হয় প্রধানত এই অঞ্চল থেকেই। অবস্থার উন্নতি না হলে পানবরজের মড়ক বাড়বে। এতে একদিকে স্থানীয় পানচাষি ও ব্যবসায়ী যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। তেমন সারাদেশের পানের বাজারেও ধস নামবে। সরবরাহ কমতে থাকলে পানের দাম আকাশচুম্বি হবে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।  

স্থানীয় পানচাষিরা বলছেন, পানচাষের জন্য বৃষ্টিপাত অবশ্যই ভালো। এতে পানবরজে বাড়তি করে সেচ দিতে হয় না। তাদের সেচের খরচটাও সাশ্রয় হয়। কিন্তু এবার যেন অন্যরূপেই হাজির হয়েছে বর্ষা। শুরু থেকেই বৃষ্টিপাত হচ্ছে। অতি বর্ষণে তাই লাভের চেয়ে ক্ষতি বেশি হচ্ছে। টানা বৃষ্টিতে একদিকে বাজারে পানের দাম কমছে আরেক দিকে পানবরজে পানি ঢুকে গোড়ায় পচন ধরিয়েছে।  

জেলা কৃষি অফিসের তথ্য অনুযায়ী, রাজশাহী জেলায় চার হাজার ৩১১ হেক্টর জমিতে পানবরজ আছে। এসবই জেলার মোহনপুর, বাগমারা ও দুর্গাপুর উপজেলায়। এবছর জেলায় পান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৬৮ হাজার ৯৭৬ মেট্রিক টন। 

আগামীনিউজ/এমআর 

Dr. Neem