August
  1. প্রচ্ছদ
  2. জাতীয়
  3. সারাবাংলা
  4. রাজনীতি
  5. রাজধানী
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আদালত
  8. খেলা
  9. বিনোদন
  10. লাইফস্টাইল
  11. শিক্ষা
  12. স্বাস্থ্য
  13. তথ্য-প্রযুক্তি
  14. চাকরির খবর
  15. ভাবনা ও বিশ্লেষণ
  16. সাহিত্য
  17. মিডিয়া
  18. বিশেষ প্রতিবেদন
  19. ফটো গ্যালারি
  20. ভিডিও গ্যালারি

স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীদের উপর নৌকা মার্কার হামলা আহত ১৫, গাড়ি ভাঙচুর

উপজেলা প্রতিনিধি, বেতাগী (বরগুনা) প্রকাশিত: জুন ১১, ২০২২, ০৭:০৭ পিএম স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীদের উপর নৌকা মার্কার হামলা আহত ১৫, গাড়ি ভাঙচুর

বরগুনাঃ শেষ ধাপের বরগুনার বেতাগী উপজেলার কাজিরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো: কামাল হোসেনের কর্মী সমর্থকদের উপর হামলা চালিয়েছে নৌকা মার্কার কর্মীরা।

এতে মোটরসাইকেল মার্কার স্বতন্ত্র প্রার্থী কামাল হোসেনের ১৫ জন কর্মী-সমর্থক গুরুতর আহত এবং এসময় কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। এর মধ্যে গুরুতর আহত পাঁচজনকে দুপুরেই বরগুনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
শনিবার (১১ মে) দুপুর ১২ টার দিকে উপজেলার কাজিরাবাদ ইউনিয়নের নৌকা মার্কার প্রার্থী সালাউদ্দিন সুমনের বাড়ির সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অপর এক স্বতন্ত্র প্রার্থীও আহত হয়।

স্থানীয়রা জানান, স্থানীয় মন্নানের হাঁট স্কুলের এসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে ফেরার পথে মোটরসাইকেল মার্কার স্বতন্ত্র প্রার্থী কামাল হোসেনের গাড়ীবহরে অতর্কিত হামলা চালায় নৌকা মার্কার প্রার্থী সালাউদ্দিন সুমনের কর্মী-সর্মথকরা। এ সময় দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে জখম হয় কামাল হোসেনের কয়েকজন সমর্থক। এতে গুরুতর আহত ৮ জন সহ ১৫ জন আহত হয় এবং মোটরসাইকেল মার্কার কর্মী সমর্থকদের বহন করা কয়েকটি ইজিবাইকে ভাঙচুর চালায়। পরে হামলাকারীরা চলে গেলে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহত ব্যক্তিরা বরগুনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নেয়।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মো: কামাল হোসেন অভিযোগ করেন, স্কুলের বিদায় অনুষ্ঠান শেষ করে আমরা ফিরছিলাম। এ সময় নৌকার প্রার্থী সুমনের কর্মীরা ৪০-৫০ জন বহিরাগত সন্ত্রাসী নিয়ে আমাদের উপর অতর্কিত হামলা করে। এছাড়াও নৌকার কর্মীরা আচরনবিধি লঙ্ঘন করে মোটরসাইকেলে শোডাউন দেয়।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী সালাউদ্দিন সুমন বলেন, আমি নির্বাচনী প্রচারনায় ব্যস্ত ছিলাম। এ বিষয়ে কিছু জানিনা। তবে আমি বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি।

বেতাগী থানার অফিসার ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) মো: শাহআলম হাওলাদার বলেন, চান্দখালী এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ও টহল বৃদ্ধি  করা হয়েছে। এখন সেখানকার পরিস্থিতি শান্ত।  তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি।

সাইদুল ইসলাম মন্টু/এসএস

Small Banner