August
  1. প্রচ্ছদ
  2. জাতীয়
  3. সারাবাংলা
  4. রাজনীতি
  5. রাজধানী
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আদালত
  8. খেলা
  9. বিনোদন
  10. লাইফস্টাইল
  11. শিক্ষা
  12. স্বাস্থ্য
  13. তথ্য-প্রযুক্তি
  14. চাকরির খবর
  15. ভাবনা ও বিশ্লেষণ
  16. সাহিত্য
  17. মিডিয়া
  18. বিশেষ প্রতিবেদন
  19. ফটো গ্যালারি
  20. ভিডিও গ্যালারি

মানবতার কল্যাণে সর্বদা বেলাল

কেএম হিমেল প্রকাশিত: জুন ৬, ২০২২, ১২:৩৩ এএম মানবতার কল্যাণে সর্বদা বেলাল
ছবিঃ আগামী নিউজ

দিনাজপুরঃ অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য দিনাজপুর জেলার গাঁও গ্রামে ছুটে চলছে এক যুবক। অনেকেই বলে থাকে মানবতার ফেরিওয়ালা আবার অনেকে বলে সমাজসেবী মানুষ। ২০০৭ সাল শুরুর দিকে ব্যক্তিগত অর্থায়নে ক্ষুদ্র ভাবে সেবামূলক কাজ শুরু করেন। এরপর হাঁটি হাঁটি পা পা করে নিজের স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য ২০২০ সালে  মানবতার কল্যাণে সর্বদা এই শ্লোগানকে সামনে রেখে 'উদয়মান সমাজ কল্যাণ সংস্থা' গঠনের মাধ্যমে শুরু হয় তার বাঁধ ভাঙা কাজের ব্যাপক প্রসার করেন। 
চরম অভাব ও অনটনের মধ্য দিয়ে বেড়ে ওঠা দিনাজপুর সদর উপজেলার পৌরসভাধীন ১০নং ওয়ার্ডের পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা নতুন পাড়া এলকায় জন্ম মানবতার ফেরিওয়ালা বেলাল হোসেনের।

পড়াশোনা দিনাজপুর সরকারি কলেজ থেকে বি.কম, বাবা ব্যবসা করেন এবং তিনি (গ্রাফিক্স ডিজাইনার)  নিজেও ব্যবসা করেন পাশাপাশি অসহায় মানুষ কল্যাণে ২০০৭ সাল থেকে মানুষের জন্য নিবেদিত প্রাণ হয়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন অসংখ্য মানুষের। 

করোনাকালীন সময়ে মৃত ব্যক্তির গোসল-দাফন ও  কর্মহীন ১ হাজার  পরিবারে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ এছাড়াও এতিম শিশুদের মান উন্নয়নে নগদ অর্থ সহ ছাগল প্রদান, দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ প্রদান, বয়স্ক-বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দিনাজপুর শহর সমাজসেবা অফিস কে সহায়তা প্রদান, আমিষ প্রকল্পের আওতায় অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের মাঝে গোস্ত সহায়তা প্রদান, শীতকালীন সময়ে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র (কম্বল) বিতরণ, পিতৃহীন বিবাহ উপযুক্ত মেয়ের বিয়েতে সহযোগিতা প্রদান, প্রতি রমজানে সারা মাস ব্যাপী এতিম শিশুদের মাঝে ইফতার বিতরণ, অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের মাঝে রমজানের উপহার প্রদানসহ চলতি বছরের রমজানে ৬০০ পরিবারের খাবার সামগ্রী বিতরণ, বিভিন্ন ব্লাড ডোনেশন সংগঠনের সাথে সম্পর্ক থাকায় বিভিন্ন সময় রক্তের প্রয়োাজনে রক্ত সহায়তা প্রদান, সমাজের ছিন্নমূল মানুষের মাঝে প্রতি শুক্রবার দিনাজপুর শহরের রেলওয়ে-বাস, ইজিবাইক ষ্টেশনে ১০০ প্যাকেট রান্না করা খাবার বিতরণ, দুই ঈদে ৭০০ পরিবারের মাঝে ঈদ বাজার বিতরণ, ঈদ-উল ফিতরে এতিম ও অতি দরিদ্র পরিবারের শিশুদের মাঝে ঈদে পোশাক বিতরণ, ঈদ-উল আযাহায় ৫ টাকায় কুরবানী ও গরু কোরবানি দেওয়ার মাধ্যমে অসহায় মানুষের মাঝে মাংস বিতরণসহ বিভিন্ন সময় নানানভাবে মানুষের পাশে দেখা যায় মোঃ বেলাল হোসেনকে। 

কেন এই কাজগুলো করেন মানবতার ফেরিওয়ালা বেলাল হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি মানুষের জন্য কাজ করতে পেয়ে নিজের কাছে এক অন্য রকম ভাল লাগা কাজ করে। যখন কোন মানুষের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করে তার উপকার করতে পারি সে উপকৃত হয় তখন নিজেকে মনে হয় আমি একটু সবার থেকে আলাদা। আলাদা হওয়ার কারণে নিজের মনের ভিতরে অফুরন্ত সুখ অনুভব হয়।
 
আপনি যখন মানুষের জন্য কাজ করা শুরু করলেন পরিবার ও আশেপাশে মানুষ বিষয়টা কীভাবে নিতো জানতে চাইলে বেলাল হোসেন বলেন, আমি যখন এই কাজ শুরু করি তখন আমাকে সবাই অধ্য পাগল বলতো। তবে আমার বাবা মোঃ আলী হোসেন ও আমার সহধর্মীনি মিনারা খানম আমাকে সবসময় সাপোর্ট ও অনুপ্রেরণা দিতেন আমার কাজে। পরবর্তীতে পাশপাশের মানুষ যখন বুঝতে পারলো আমার কাজের দ্বারা সমাজের মানুষ উপকৃত হচ্ছে তখন এলাকার মানুষও আমার কাজে সহযোগিতা করতে শুরু করলো।

ভবিষ্যত পরিকল্পনা সম্পকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভবিষ্যৎতে পথশিশুদের জন্য স্কুল প্রতিষ্ঠা, বৃদ্ধাশ্রম প্রতিষ্ঠা, বিধবা মহিলাদের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে স্বালম্বী করা এবং দিনাজপুর জেলাকে "আলোকিত  দিনাজপুরে" পরিণত করা। স্বপ্ন দেখি স্বপ্নের বাংলাদেশ বিণির্মাণের। সারাজীবন মানুষের পাশে থাকতে চাই। একই সাথে সমাজের সর্বস্তরের মানুষের কাছে দোয়া ও ভালবাসা চাই। যাতে সকলের দোয়া ও ভালবাসায় আমার উক্ত স্বপ্নগুলো পূরর্ণ করা সম্ভব হয়।

এসএস

Small Banner