August
  1. প্রচ্ছদ
  2. জাতীয়
  3. সারাবাংলা
  4. রাজনীতি
  5. রাজধানী
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আদালত
  8. খেলা
  9. বিনোদন
  10. লাইফস্টাইল
  11. শিক্ষা
  12. স্বাস্থ্য
  13. তথ্য-প্রযুক্তি
  14. চাকরির খবর
  15. ভাবনা ও বিশ্লেষণ
  16. সাহিত্য
  17. মিডিয়া
  18. বিশেষ প্রতিবেদন
  19. ফটো গ্যালারি
  20. ভিডিও গ্যালারি

স্ট্যান্ড রিলিজের পরেও গোপনে অফিস করছেন  মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা

উপজেলা প্রতিনিধি, বেতাগী (বরগুনা) প্রকাশিত: জুন ১, ২০২২, ০৭:৩৮ পিএম স্ট্যান্ড রিলিজের পরেও গোপনে অফিস করছেন  মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা

বরগুনাঃ জেলার বেতাগীতে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শাহিনুর বেগমর স্ট্যান্ড রিলিজের পরেও গোপনে পুরনো কর্মস্থলে এসে অফিস করছেন। বুধবার (০১ জুন) সকাল ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত তিনি অফিস করেন। বদলির আদেশ উপেক্ষা করে নতুন কর্মস্থলে যোগ না দিয়ে অফিস করায় স্থানীয়দের মাঝে রহস্যের জন্ম দিয়েছে।

জানা গেছে, গত ২৩ মে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে বেতাগী উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শাহিনুর বেগমকে বান্দরবন জেলার থানচি উপজেলায় বদলি করা হয়। এর প্রজ্ঞাপনে ৩০ মে-‘২০২২‘র মধ্যে তাঁকে নতুন কর্মস্থল থানচিতে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে যোগদান করতে বলা হয়। অন্যথায় ৩০ মে অপরাহ্ন থেকে বর্তমান কর্মস্থল হতে তাৎক্ষণিক অবমুক্ত হিসেবে গণ্য হবেন বলে উল্লেখ করা হয়। কিন্তু উল্লিখিত সময়সীমা অতিক্রান্ত হলেও তিনি তার নতুন কর্মস্থলে এখনো যোগদান করেননি। বরং পুরনো কর্মস্থলে এসে গোপনে অফিসের কার্যক্রম চালাচ্ছেন।

বদলীকৃত উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শাহিনুর বেগম বেতাগীতে গোপনে অফিস করছেন এমন খবর পেয়ে বুধবার তার কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, শাহিনুর বেগমের অফিস কক্ষটি বাইরে থেকে তালাবদ্ধ রয়েছে। পাশের অন্য একটি রুমে তিনজন মহিলা অবস্থান করছেন। কথা বলার উদ্দেশ্যে তাদের কাছে গিয়ে দেখা যায় শাহিনুর বেগম মুখে ওড়না পেচিয়ে সাধারণ একটি চেয়ারে বসে অফিসের কাজ করছেন। এসময় সাংবাদিকের উপস্থিতি টের পেয়ে তিনি ব্যস্ত হয়ে পড়েন। স্ট্যান্ড রিলিজের পরও তিনি কিভাবে অফিস করছেন এ বিষয়ে জানতে চাইলে এ প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে তিনি রুম ত্যাগ করেন।

নাম না প্রকাশের শর্তে  উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে কর্মরত একাধিক কর্মচারি জানান, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শাহিনুর বেগমকে গত ২৩ মে বান্দরবনের থানচিতে বদলি করা হয়। ইতোমধ্যে গত মঙ্গলবার বরগুনা জেলা অফিস থেকেও তাকে অব্যহতিপত্র দেওয়া হয়। তারপরও তিনি কোন আইনের বলে অফিস করছেন তা তাদের অজানা।

বরগুনা জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মেহেরুন নাহার মুন্নির সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।
বেতাগী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সুহৃদ সালেহীন বলেন, এখানকার উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শাহিনুর বেগমকে ইতোমধ্যে বান্দরবনের থানচিতে বদলি করা হয়েছে। ৩০ মে‘র মধ্যে তার পুরানো কর্মস্থল ত্যাগ করার কথা। এখন কোন অবস্থাতেই তার আর এখানে অফিস করার সুযোগ নেই।

সাইদুল ইসলাম মন্টু/এসএস 

Small Banner