August
  1. প্রচ্ছদ
  2. জাতীয়
  3. সারাবাংলা
  4. রাজনীতি
  5. রাজধানী
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আদালত
  8. খেলা
  9. বিনোদন
  10. লাইফস্টাইল
  11. শিক্ষা
  12. স্বাস্থ্য
  13. তথ্য-প্রযুক্তি
  14. চাকরির খবর
  15. ভাবনা ও বিশ্লেষণ
  16. সাহিত্য
  17. মিডিয়া
  18. বিশেষ প্রতিবেদন
  19. ফটো গ্যালারি
  20. ভিডিও গ্যালারি

শিক্ষক উৎপল হত্যায় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: জুন ৩০, ২০২২, ০৪:১০ পিএম শিক্ষক উৎপল হত্যায় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি বাতিল
শিক্ষক উৎপল কুমার

ঢাকাঃ সাভারের আশুলিয়ায় হাজী ইউনুছ আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ওই প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডির এডহক কমিটি স্থগিত করেছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) দুপুরে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক আবু তালেব মো. মোয়াজ্জেম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির এক ছাত্র স্টাম্প দিয়ে পিটিয়ে শিক্ষক উৎপলকে হত্যা করে। অভিযুক্ত ছাত্র ওই প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. সুমনের ভাতিজা। তার প্রভাবেই ওই ছাত্র প্রভাব দেখিয়ে ইচ্ছামতো চলাফেরা করে।

আজ এক বৈঠকে ওই কমিটি স্থগিত করা হয়েছে জানিয়ে অধ্যাপক আবু তালেব আরও বলেন, ‘প্রতিষ্ঠানটিতে ম্যানেজিং কমিটির অনুমোদই দেওয়া হয়নি। প্রক্রিয়াধীন ছিল। আমরা প্রক্রিয়াধীন অবস্থাতেই এই কমিটি স্থগিত করেছি।’

আরও পড়ুন: স্কুলে হিরোইজম দেখাতে শিক্ষককে স্ট্যাম্প দিয়ে পেটায় জিতু

গত ২৫ জুন হাজী ইউনুছ আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র আশরাফুল আহসান জিতু ক্রিকেট খেলার স্টাম্প দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায় শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারের ওপর। প্রথমে ওই ছাত্র শিক্ষকের মাথায় আঘাত করে এবং পরে এলোপাতাড়ি পেটাতে থাকে। এ ছাড়া স্টাম্পের সূচালো অংশ দিয়ে পেটের বিভিন্ন অংশে আঘাত করে।

গুরুতর আহত অবস্থায় ওই শিক্ষককে প্রথমে আশুলিয়া নারী ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেওয়া হয়। আঘাত গুরুতর হওয়ায় পরে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সোমবার (২৭ জুন) ভোরে হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ওই শিক্ষকের বড় ভাই অসীম কুমার সরকার আশুলিয়া থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় স্কুলছাত্র জিতুর নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করা হয়। ঘটনার পরপরই বিভিন্ন স্থানে আসামি ধরতে অভিযান শুরু করে পুলিশ।

এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল ভোরে কুষ্টিয়ার কুমারখালী থেকে ওই ছাত্রের বাবা উজ্জ্বলকে গ্রেফতার করে আশুলিয়া থানা পুলিশ। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এরপর বিকালে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হন মূলহোতা আশরাফুল ইসলাম জিতু।

এমবুইউ

Small Banner