August
  1. প্রচ্ছদ
  2. জাতীয়
  3. সারাবাংলা
  4. রাজনীতি
  5. রাজধানী
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আদালত
  8. খেলা
  9. বিনোদন
  10. লাইফস্টাইল
  11. শিক্ষা
  12. স্বাস্থ্য
  13. তথ্য-প্রযুক্তি
  14. চাকরির খবর
  15. ভাবনা ও বিশ্লেষণ
  16. সাহিত্য
  17. মিডিয়া
  18. বিশেষ প্রতিবেদন
  19. ফটো গ্যালারি
  20. ভিডিও গ্যালারি

২০ হাজার টাকা না পেয়ে অটোরিকশা চালককে খুন, গ্রেপ্তার ৩

জেলা প্রতিনিধি,ময়মনসিংহ প্রকাশিত: জুন ৪, ২০২২, ০৮:৩৮ পিএম ২০ হাজার টাকা না পেয়ে অটোরিকশা চালককে খুন, গ্রেপ্তার ৩

ময়মনসিংহঃ ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে ২০ হাজার টাকা চাঁদা চেয়ে না পেয়ে মোজাম্মেল হোসেন (২১) নামে এক অটোরিকশা চালককে খুন করে অটোরিকশা ছিনতাইয়ের ঘটনার প্রায় সাড়ে তিন মাস পর হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন করেছে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। একই সঙ্গে এ হত্যার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার দত্তপাড়া গ্রামের আবুল মনসুরের ছেলে আবু রায়হান (২৫), সরিষা এলাকার নূর আহাম্মদ মিলনের ছেলে মোজাম্মেল হক (১৯) এবং ধামদী গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে জিয়াউর রহমান সাইদুল (২১)। শুক্রবার (৩ জুন) রাতে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে ডিবি।

শনিবার (৪ জুন) দুপুরে জেলা ডিবি পুলিশের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সফিকুল ইসলাম। 

তিনি বলেন, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি উপজেলার মৃগালী এলাকায় সড়কের পাশ থেকে অটোচালক মোজাম্মেল হোসেনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তার বাড়ি নান্দাইল উপজেলার সাভার এলাকায়। স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আগের দিন সকালে সিএনজিচালিত অটোরিকশা নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন মোজাম্মেল। রাত সাড়ে ১১টার দিকে মোজাম্মেলের নম্বর থেকে তার বাবা ফরিদ মিয়ার মোবাইল নম্বরে কল করে অপরিচিত কণ্ঠে বিকাশের মাধ্যমে ২০ হাজার টাকা পাঠাতে বলে। টাকা পাঠাতে না পারলে মোজাম্মেলকে হত্যা করে অটোরিকশাটি ছিনিয়ে নিয়ে যাবে বলে হুমকি দেয়। তবে আর্থিক দৈন্যতার কারণে ফরিদ মিয়া টাকা যোগাড় করে দিতে পারেননি। পরের দিন সকাল ১০টার দিকে ঈশ্বরগঞ্জের মৃগালী এলাকায় সড়কের পাশে মোজাম্মেলের মরদেহ পাওয়া যায়।

সফিকুল ইসলাম আরও বলেন, ওইদিনই এ ঘটনায় ঈশ্বরগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করা হয়। পরে মামলার তদন্তভার জেলা ডিবি পুলিশের ওপর ন্যাস্ত করা হলে ক্লু-লেস এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটনে কাজ শুরু করে ডিবি। সাড়ে তিন মাস পর আসে সফলতা। হত্যায় জড়িত তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের পর জানা গেছে, ঘটনার দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নান্দাইল চৌরাস্তা থেকে যাত্রীবেশে মোজাম্মেলের অটোরিকশাটি ভাড়া করেন আসামিরা। এরপর ময়মনসিংহ শহরে এসে সময়ক্ষেপণ করেন তারা। রাত গভীর হলে ময়মনসিংহ থেকে ঈশ্বরগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওনা হন। একপর্যায়ে মোজাম্মেলের মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করে তার বাবার কাছে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। সেই টাকা না পেয়ে মোজাম্মেলের গলায় মাফলার পেঁচিয়ে নাক ও মুখ চেপে ধরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে রাস্তার পাশে ফেলে অটোরিকশা ও নিহতের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যান ঘাতকরা।

এ ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

এসএস

Small Banner