Agaminews
Dr. Neem Hakim

আমরা তোমাদের ভুলবো না


আগামী নিউজ | সুমু ইলাহী প্রকাশিত: মে ১১, ২০২০, ০২:২৬ পিএম
আমরা তোমাদের ভুলবো না

এক সাগর রক্তের বিনিময়ে বাংলার স্বাধীনতা আনলে যারা, আমরা তোমাদের ভুলবো না, এই মহাগানের স্রষ্টা লেখক শ্রদ্ধেয় গোবিন্দ হালদার কে আমরা কজন মনে রেখেছি জানিনা তবে তাঁর লেখা এই কাল জয়ী গান বাংলাদেশ মনে রেখেছে, যা আজ স্বাধীনতা এর বীরত্ব গাঁথা এক মহাসৃষ্টি। 

আজ বিশ্বজুড়ে চলছে মহামারি, এক ভয়ংকর ভাইরাস নাম COVID-19 যা আমাদের পুরো পৃথিবীকে অস্থির করে তুলেছে, উন্নত আর অনুন্নত দেশ কাউকে ছাড় দেয়নি, বাংলাদেশও প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা আর মৃত্যুও। অপরদিকে এটা আমাদের জীবন-জীবিকারও উপর আঘাত করেছে, আমরা আজ এমন এক পরিস্থিতির সামনে দাঁড়ানো যা হয়ত মাত্র ৩ মাস আগেও কেও কল্পনা করতে পারিনি।আর বিশ্ব আজ যাদের দেখছে তারা যেন কখন সাধারণ মানুষ থেকে সৈনিকে পরিণত হয়েছে তাও টের পাইনি। আর সারা বিশ্বব্যাপী আজ এই মহামারি যুদ্ধের অন্যতম নায়ক স্বাস্থ্যকর্মীরা। 

আর আজ এই হাজারো নায়ক এর একজন আমার বড় বোন কাজী সালমা (জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালের একজন স্বাস্থ্যকর্মী)। সরকার পিপিই দেবার আগেই নিজে আরো কিছু কলিগসহ সবাই পোশাক বানিয়ে তৈরি, বলে সবাই শ্বাস কষ্ট হলেই প্রথমে হৃদরোগ হাসপাতালে আসে, আর ইতালির পরিস্থিতি দেখে আমরাও প্রস্তুত। আর এটাই বাংলাদেশ, যা মানবতা আর দেশপ্রেম এ গাঁথা। এই লেখাটা তাঁর (আমার বোন) আরসব সাহসী মাঠকর্মীদের জন্য। সময়টা এত ভাল না হয়তো আমাদের কারো জন্য কিন্তু আশা অনেক খুব তাড়াতাড়ি সব ঠিক হয়ে যাবে আপনাদের মত সব সাহসী কর্মীদের সহযোগিতায়। এখন চারিদিকে শুধু স্বাস্থ্যকর্মী অসুস্থ্য হবার সংবাদই দেখি, তবু হাল ছাড়ছি না, কাছের মানুষগুলোর জন্য আমাদের অস্থিরতা এখন যেন প্রতিদিনের কাজ তবুও ভীতু নই আমরা, আমাদের উভয়ের এই সাহস আর ত্যাগই এই মহামারির বিরুদ্ধে আমাদের প্রথম বিজয়। 

আমরা আমার বোনকে নিয়ে চিন্তিত তবে তাঁর এই  মহান কাজের  কারনে অনেক বেশি গর্বীতও। আমরা জানি, আজ সব সেবা প্রদানকারী পরিবারের আমাদের মতোই একই অবস্থা। তবে আমরা কেউ আজ ভয় পাবো না, আজ আমরা সবাই সাহসী পরিবার, সারা বাংলাদেশ আমাদেরই আপনজনদের উপর ভরসা করে আছে, এটা দেশকে সেবা করার এক মহান সুযোগ, যা বীর সৈনিকদেরই মিলে, তাই আজ স্বাস্থ্যকর্মীরাও দেশের বীর সৈনিক, আর এই দেশ বীরের সম্মান করতে জানে, অনেক দেরিতে হলেও আমরা তা দেখেছি যুদ্ধ অপরাধীদের বিচার এর মাধ্যমে।

আমাদের প্রিয় স্বাস্থ্যকর্মীরা, দেশ-সরকার-জনগণ-পরিবার আমরা সকলে মিলে এই করোনা মহামারির বিরুদ্ধে লড়তে আপনাদের সাহায্য করছি, আমরা ঘরে থাকছি, সামাজিক দূরত্ব বজাই রাখছি। বাংলাদেশ আপনাদের সকলের পাশে আছে। আর এই যুদ্ধে আপনারা জয়ী হয়ে ফিরবেনই, ইনশাআল্লাহ্‌। একটা ভাইরাসের এত ক্ষমতা নাই যে আমাদের ভালবাসা আর বন্ধনগুলোকে পরাজিত করবে। তাই এখন শুধু ধৈর্য ধরে দেশকে সাথে নিয়ে চলতে হবে। আপনাদের সেবা আর আমাদের মানবতা এই হাতিয়ারই আরও একবার আমাদের বিজয়ী করবে।

আমরা এবার আরো একবার দেশ প্রেমিক এর নতুন সংজ্ঞা লিখব। করনার সময় পুলিশ, মেডিকেল, খাদ্য ও অন্যান্য জরুরি সেবায় যারা সেবা দিচ্ছেন আপনাদের মা-বাবা, পরিবার, সন্তান সবাই আজ যে ত্যাগ স্বীকার করছে তা আমরা মনে রাখবো, হইত এই মহামারির সাথে আমাদের দেশেরও অনেক পরিবর্তন হবে। এইদূরত্বটা আবার আমাদের একে অন্যের কাছাকাছি নিয়ে আসবে। 

আমাদের একতা এই মহামারি কে পরাজিত করতে সাহায্য করবে, তাই অনুরোধ সবাই সরকার কে সহয়তা করুন, WHO এর COVID-19 রেগুলেশন ফলো করুন দয়া করে। জার্মানি দেখিয়েছে কিভাবে এই মহামারীর সাথে লড়তে হবে, আমরাও পারবো ইনশাআল্লাহ্‌। সরকার কে শুনুন, বেশি টেস্ট করান। এটা একটা মানবতারও যুদ্ধ। তাই আমাদের চারপাশে থাকা অভাবী আর দিনমজুর মানুষগুলোকে যেন একটু খেয়াল রাখি। আর সরকারকে একটা অনুরোধ, দয়া করে সামনের সারির ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ আর অন্যান্য যারা সরাসরি যুক্ত তাদের সাহস দিন, যথাযত নিরাপত্তা দিন এবং অসুস্থ হলে যেন সঠিক সেবা পায় তা নিশ্চিত করুন, যা এখন প্রমোদনের চেয়েও বেশি দরকার। স্বাস্থ্যকর্মীদের সুস্থ থাকা এই মুহূর্তে খুব জরুরী কারণ আজ তাঁদের হাতে বাংলাদেশ। যারা সেবার কাজ করছেন তাঁদের পরিবার এর সবাইকে আনুরোধ, তাঁদের (স্বাস্থ্যকর্মী) পাশে থাকুন, তাঁদের মনোবল কে মজবুত করুন, তাঁদের বিশ্বাস দিন তারা শক্ত হাতে দেশ কে সুস্থ করে তুলুক, পুরো বাংলাদেশ আছে তাঁদের সাথে।

গোবিন্দ হালদারের গানের কথাটা আমরা তোমাদের ভুলবো না আপনাদের সবার জন্য যারা আজ সামনে থেকে এই করোনা যুদ্ধে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। আমরাও পুরো দেশ আপনাদের দেখছি, ভরসা করতে চাচ্ছি। মানুষ, দেশ, অর্থনীতি সবকিছু মূলস্রোতে আসতে সরকার আর স্বাস্থ্যসেবা এই মুহূর্তে একজন আরেকজনের পরিপূরক হয়ে কাজ করতে হবে আর এটা এখন স্বাস্থ্যকর্মীরাই শুধু সফল করার ক্ষমতা রাখেন। স্বাধীনতার ৪৯ বছরে আমরা ঘুরে দাঁড়াতে গিয়ে আরও একবার অনেক বড় একটা মানবিক যুদ্ধে পড়ে গেলাম যা পুরো বিশ্ব লড়ছে। আর এই যুদ্ধে সবার সামনের নায়ক আপনারা (স্বাস্থ্যকর্মীরা)। তাই আজ আপনারা সবাই সৈনিক আর যুদ্ধ ক্ষেত্রে লড়াকু বীরসৈনিক কে জাতি হয়ত ভুলে যেতেও পারে কিন্ত দেশ কোনদিনই ভুলবে না। 

সুমু ইলাহী, জার্মানী প্রবাসী। 
sumuelahi@gmail.com

Dr. Neem