Agaminews
Dr. Neem Hakim
Dr. Neem Hakim

বানের জলে হাজারো কৃষকের স্বপ্নভঙ্গ


আগামী নিউজ | সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২০, ১২:০৩ পিএম
বানের জলে হাজারো কৃষকের স্বপ্নভঙ্গ

সংগৃহীত ছবি

সিরাজগঞ্জ: গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিরাজগঞ্জে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।ফলে প্রতিদিনই জেলার নিম্নাঞ্চলসহ গ্রাম-জনপদ পানিতে প্লাবিত হচ্ছে। তলিয়ে যাচ্ছে নিম্নাঞ্চলের শত শত একর ফসলি জমি। ফলে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে চাষিরা। 

জেলার পাঁচটি উপজেলার প্রায় ২০টি ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। সদর উপজেলার কাওয়াকোলা, মেছড়া, কাজীপুরের খাসরাজবাড়ি, মাইজবাড়ি, তেকানি, নাটুয়ার পাড়া, চরগিরিশ, নিশ্চিন্তপুর, চৌহালীর স্থল, ঘোড়জান, সদিয়া চাঁদপুরসহ ২০টি ইউনিয়নের হাজার হাজার একর জমির ফলস এখন পানির নিছে। এসব এলাকার কৃষক এখন দিশেহারা।

তবে কৃষকরা বলছেন, দ্রুত গতিতে পানি বৃদ্ধির ফলে পাট, তিল, তিশি, বাদাম, সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। তবে কিছু কিছু এলাকায় পানির মধ্যে নেমে পাট কাটতে দেখা যায়। তবে এ পাট জ্বালানী হিসাবে ব্যবহার ছাড়া কোন কাজে লাগবে না বলে জানান চাষিরা। 

সদর উপজেলার মেছরা ইউনিয়নের গটিয়ার চরের কৃষক কছিমুদ্দিন মিয়া বলেন, যমুনায় পানি বৃদ্ধির ফলে প্রায় দুই একর জমির পাট এখন পানির নিচে। এবার ফলন খুব ভালই হয়েছিল। এবার অনেক স্বপ্ন দেখেছিলাম। আমার স্বপ্ন এখন পানির নিচে। একই এলাকার কৃষক ছবদের আলী বলেন, পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আমার জমিগুলো তলিয়ে গেছে। এতে সবজি, পাট ও তিলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আগামী দিনগুলো পরিবার নিয়ে কিভাবে চলব আল্লাহপাক জানে।

এ প্রসঙ্গে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক (ডিডি) মো. হাবিবুল ইসলাম জানান, বৃষ্টির পানিতে জেলার পাঁচটি উপজেলার প্রায় ২০টি ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে ১৫ শত ৯ হেক্টর ফসলি জমি নিমজ্জিত হয়েছে। এতে কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। 

আগামীনিউজ/এমআর 

Dr. Neem